২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ১০ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১:৪৮

বান্দরবানে ১৩ এপ্রলি থকেে শুরু সাংগ্রাই উৎসব

বান্দরবান প্রতনিধি: র্পাবত্য জলো র্বণাঢ্য আয়োজনে শুরু হতে যাচ্ছে মারমা সম্প্রদায়রে ঐতহ্যিবাহী সামাজকি উৎসব সাংগ্রাই। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০ টার দকিে স্থানীয় রাজার মাঠ সংলগ্ন ফ্লোরা রি স্বং স্বং রস্টেুরন্টেে এক সংবাদ সম্মলেনরে মাধ্যমে উৎসব উদযাপন পরষিদ এ তথ্য জানায়।


এ সময় উপস্থতি ছলিনে উৎসব উদযাপন পরষিদরে সভাপতি হ্লাগ্য চংচি র্মামা, সহ-সভাপতি মনিি প্রু র্মামা, সহ-সভাপতি এমে চংচি র্মামা, সহ-সভাপতি মং মং প্রু র্মামা, সাধারণ সম্পাদক কোকো চংি র্মামা, মহলিা বষিয়ক সম্পাদক একি নু র্মামা, ক্রীড়া সম্পাদক মংথুই প্রু (বাবুশ)। আরো উপস্থতি ছলিনে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত র্কমকতা (ওস) মোঃ রফকিউল্লাহ্ ও জলো প্রসে ক্লাবরে সভাপতি আমনিুল ইসলাম বাচ্চুসহ বভিন্নি প্রন্টি ও ইলক্ট্রেনকি মডিয়িার র্কমরত সংবাদর্কমী এবং সাংগ্রাই উৎসব উদযাপন পরষিদ র্কমীরা।


উৎসব উদযাপন পরষিদরে সহ-সভাপতি মনিি প্রু র্মামা জানান, সাংগ্রাই উৎসবকে আরো প্রাণবস্ত করে তুলতে পাঁচ দনিব্যাপী নয়ো হয়ছেে বভিন্নি র্কমসূচ   তার মধ্যে ১৩ এপ্রলি সকালে সাংগ্রাইয়রে র্বণাঢ্যর্ যালি রাজার মাঠ থকেে শুরু হয়ে জলো শহররে প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষণি করব।

এ সময় উপস্থতি থাকবনে র্পাবত্য চট্টগ্রাম বষিয়ক মন্ত্রণালয়রে প্রতমিন্ত্রী বীর বাহাদুর উশসৈং এমপি ।র্ যালি ও চত্রিাঙ্কন এবং আপন ঐতহ্যিে সাজ প্রতযিোগতিা এবং বয়স্কদরে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করা হবে এবং ১৪ এপ্রলি দুপুরে সাংগু নদীর পাড়ে বুদ্ধ র্মূতি স্নান। ১৫ এপ্রলি বকিালে রাজার মাঠে মত্রৈী পানি র্বষন ও সাংস্কৃতকি অনুষ্ঠান। ১৬ এপ্রলি শষে দনিে হসিবেে রাজার মাঠে মত্রৈী পানি র্বষন ও সাংস্কৃতকি অনুষ্ঠানরে আয়োজন করা হয়ছে। ১৩ এপ্রলি থকেে শুরু হয়ে ১৬ এপ্রলি সকালে র্প্রাথনার মাধ্যমে শষে হবে সাংগ্রাই উৎসব। এছাড়া আরো রয়ছেে ম্যারাথন দৌড়, চত্রিাঙ্কন প্রতযিোগতিা, পঠিা তরৈী, , হাজারো প্রদীপ প্রজ্জলন, বয়স্ক পূজা এবং আদবিাসী নজিস্ব ঐতহ্যিবাহী নৃত্য-গান। এই উপলক্ষে পাহাড়ী গ্রাম গুলোতে চলছে ব্যাপক প্রস্তুত।


বান্দরবান সদর থানার ভারপ্রাপ্ত র্কমর্কতা(ওস) মোঃ রফকিউল্লাহ্ সংবাদ সম্মলেনে বলনে, বাংলা নবর্বষ ও সাংগ্রাই উৎসবকে ঘরিে করে নরিাপত্তা ব্যবস্থা জােরদার করা হব। যকেোন ধরনরে অনাকাঙ্ক্ষতি ঘটনা এড়াতে পুলশি সজাগ থাকব। মোটরসাইকলেে একজনরে বশেি চলার অনুমতি দয়ো হবে না এবং উৎসব উদযাপন স্থানে কোন ব্যাগ বহন না করার জন্য তনিি সকলরে প্রতি আহ্বান জানান।


মারমা সম্প্রদায় সাংগ্রাই, ম্রো সম্প্রদায় চাংক্রান, খয়োং সম্প্রদায় সাংগ্রান, খুমী সম্প্রদায় সাংগ্রায়, চাকমা সম্প্রদায় বঝিু ও তঞ্চঙ্গ্যা সম্প্রদায় বষিু, এবং ত্রপিুরা সম্প্রদায় বসৈু, এই চার সম্প্রদায়রে এই উৎসবকে সমষ্টগিত ভাবে বসৈাবি বলা হয়।
মারমাদরে সাংগ্রাই এর মূল আর্কষন মত্রৈী পানি র্বষন উৎসব। সকল পাপাচার ও গ্লানী ধুয়ে মুছে নতিে তরুণ-তরুণীরা একে অপররে গায়ে পানি ছটিানোর উৎসবে মতেে উঠ। পুরাতন বছরকে বদিায় এবং নতুন বছরকে বরণরে জন্য মূলত এই উৎসব।

কিউএনবি/ রিয়াদ/১১ই এপ্রিল, ২০১৭ ইং/সন্ধ্যা ৬:০৭