১৭ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৩রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ৪:৪২

যশোরে বিএনপির অভিযোগ ভোটের নামে প্রহসন হয়েছে

রাকিব হোসেন যশোর প্রতিনিধিঃ যশোর বিএনপির নেতৃবৃন্দ যশোর সদর উপজেলার উইপি নির্বাচনকে প্রহসন ও ভোট ডাকাতির নিবাচন বলে আভিযোগ করেছেন। গতকাল প্রেসক্লাব যশোরেআয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন। দলের পক্ষ থেকে অবিলম্বে নির্বাচনী ফলাফল বাতিল করে নতুন নির্বাচনের দাবি জানিয়েছেন। গত ৩১ মার্চ যশোর সদর উপজেলায় অনুষ্টিত ইউপি নির্বাচনে সন্ত্রাস,সহিংতা, ভোটডাকাতি ও কারচুপির অভিযোগে যশোর সদরউপজেলা বিএনপি এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে। সংবাদ সম্মেলনে নেতৃবৃন্দ বলেন, এখন নির্বাচন কোন উৎসব নয়। নির্বাচন মানে আতস্ক। শাসক দল ভোটে নামে দখল দারিত্ব কায়েম করেছে। বর্তমানেনির্বাচনের যে পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে তাতে আগামীতে আর কোন ভাল মানুষের নির্বাচন করবে না। গ্রামের মানুষ আজ আতংকিত। শাসক দলের সন্ত্রাসীদের হুমকি-ধামকির কারণে সাধারণ জনগণ তাদের ভোটাধিকারপ্রয়োগ করতে পারেনি। ফলে এ নির্বাচন গ্রহণযোগ্য হতে পারে না। অবিলম্বে এ প্রহসনের নির্বাচন বাতিল করে নতুন নির্বাচনের দাবি জানান। সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি আরও অভিযোগ করেন, সদর উপজেলার ১৫ ইউনিয়নের নির্বাচনের তফশিল ঘোষণার পর থেকেই শাসক দলের সন্ত্রসীরা বিএনপি প্রার্থী ও কর্মীদের হুমকি- ধামকি দিতে শুরু করে। নির্বাচনের আগে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে তিনজন বিএনপির প্রার্থীর মনোয়নপত্র প্রত্যাহারে বাধ্য করেছে। যশোর সদর উপজেলার ১৫ ইউনিয়নে বিএনপির নিশ্চিত বিজয় ছিনিয়ে নিতে আওয়ামী সন্ত্রাসীরা অনেক আগে থেকেই সন্ত্রাসের পথ বেছে নেয়। তারা বিএনপি সমর্থিত ও সাধারণ ভোটারদের মাঝে আতঙ্ক সৃষ্টি করতে বিএনপির দুজন নেতাকে খুন করে। ভোটের ভোটারদের ভোটকেন্দ্রে যেতে নিষেধ করা হয়। তারা ভোটকেন্দ্রের আশপাশে বিএনপির ভোটারদের দেখলে তাদের ওপর হামলা ও লাঞ্ছিত করেছে। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ  করেন সদর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী আজম। সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সৈয়দ সাবেরুল হক সাবু জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি প্রফেসর গোলাম মোস্তফা, সাংগঠনিক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন খোকন, নগর বিএনপির সভাপতি মারুফুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মুনির আহমেদ সিদ্দিকী বাচ্চু, সদর উপজেলা বিএনপির সভাপতি নূরুন্নবী প্রমুখ।

 

তারিখ: ০২-০৪-২০১৬/কুইকনিউজবিডি/রাকিব/ সময়:১২:১২