২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ১১ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ৭:০৪

ফুলবাড়ীতে ৭টি ইউনিয়নে ৫টি আওয়ামীলীগ ১টি বিএনপি ১টি বিদ্রোহী

মোহাম্মদ লায়ন ইসলাম বাবু, খানসামা(দিনাজপুর)প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিএনপি”র ভরাডুবি হয়েছে, ৭টি ইউনিয়নের মধ্যে ৫টি পেয়েছে আওয়ামীলীগ, ১টি বিএনপি ও ১টি আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী।
বৃহস্পতিবার (৩১মার্চ) দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন এই ফলাফল হয়।
নির্বাচনে ১নং এলুয়াড়ী ইউনিয়নে বিএনপি’র মনোনিত প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান মওঃ মোঃ নবিউল ইসলাম ধানের শীষ প্রতিক নিয়ে ৭৯০৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি আওয়ামীলীগের প্রার্থী মঞ্জু রায় চৌধুরী নৌকা প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ৬৬৫০ ভোট, এছাড়া অপর প্রতিদ্বন্দি স্বতন্ত্র প্রার্থী রেদওয়ান হোসেন আনারস প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ১১৯ ভোট।
২নং আলাদিপুর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের মনোনিত প্রার্থী মোজাফ্ফর রহমান নৌকা প্রতিক নিয়ে ৪৬৮৩ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি স্বতন্ত্র প্রাথী বেলাল হোসেন পেয়েছেন ৪৫৮৬ ভোট ও অপর প্রতিদ্বন্দি জামায়েতী ইসলামের প্রার্থী মোঃ হাবিবুর রহমান(স্বতন্ত্র) মটর বাইক প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ২৬৮৮ ভোট।
৩ নং কাজিহাল ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের মনোনিত প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ মানিক রতন নৌকা প্রতিক নিয়ে ৫৯০৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি বিএনপি”র মনোনিত প্রার্থী মোঃ আশরাফুল ইসলাম ধানের শীর্ষ প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ৫৪৯০ ভোট, অপর প্রতিদ্বন্দি বিএনপি’র বিদ্রোহী প্রার্থী মোঃ আবুল হোসেন আনারস প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ৮৩৬ ভোট।
৪নং বেতদিঘী ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের মনোনিত প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান শাহ মোঃ আব্দুল কুদ্দুস নৌকা প্রতিক নিয়ে ৫৫৬৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি বিএনপি’র মনোনিত প্রাথী মেজবাহুল ইসলাম ধানের শীর্ষ প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ৪৮৫৯ ভোট, অপর প্রতিদ্বন্দি আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী লিয়াকত আলী আনারস প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ৩৩২১ ভোট।
৫নং খয়েরবাড়ী ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের মনোনিত প্রার্থী আবু তাহের মন্ডল নৌকা প্রতিক নিয়ে ২৬১৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি বিএনপি’র মনোনিত প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ মোজাফফর হোসেন চৌধূরী ধানের শীর্ষ প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ২৩৪২ ভোট, অপর প্রতিদ্বন্দি বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী মোঃ মঞ্জুরুল হক আনারস প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ২১২৫ ভোট।
৬নং দৌলতপুর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের মনোনিত প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল আজিজ নৌকা প্রতিক নিয়ে ৩৪০৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি বিএনপি’র মনোনিত প্রার্থী মাহফুজুর রহমান আবু ধানের শীর্ষ প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ২৫৫৯ ভোট, অপর প্রতিদ্বন্দি আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সাইফুল ইসলাম ঘোড়া প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ২১২৫ ভোট।
৭ নং শিবনগর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মোঃ মামুনুর রশিদ চৌধুরী বিপ্লব মটর বাইক প্রতিক নিয়ে ৬৪৩১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি আওয়ামীলীগের মনোনিত প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান হারুনুর রশিদ নৌকা প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ৪৯৩৮ ভোট, এছাড়া বিএনপির মনোনিত প্রার্থী খন্দকার মেহেদী হাছান সাজু ধানের শীষ প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ৪০৪০ ভোট ও স্বতন্ত্র প্রার্থী রফিকুল ইসলাম আনারস প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ৩০৬০ ভোট।
গত বৃহস্পতিবার ভোট গ্রহণ ও গণনা শেষে রাত ৯টায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের রির্টানিং কর্মকর্তা উপজেলা নির্বাচন অফিসার আহসান হাবিব, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুস ছাত্তার ও উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মিসেস হাসিনা ভুঁইয়া পৃথক পৃথক ভাবে এই ফলাফল ঘোষনা করেন।
এছাড়া শান্তিপুর্ণভাবে শেষ হয়েছে উপজেলার ৭টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের ভোট গ্রহন। তবে বিএনপির ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে কর্মী ও স্থানীয় নেতাদের অসহযোগীতার কারণে বিএনপির এই ভরাডুবি। অনেকে মন্তব্য করেছেন উপজেলায় যারা মননোয়ন পত্র বিক্রি করেছিলেন তাদের কিছুটা অসহযোগীতার কারণে বিএনপির মাঠ পর্যায়ে এই চরম দূরবস্থার দেখা দিয়েছে। আগামি দিনে উপজেলার শীর্ষ পর্যায়ের নেতা দেরকে পরিবর্তন করা না হলে এ এলাকায় বিএনপির এভাবে ভরাডুবি হতেই থাকবে। এ জন্য কেন্দ্রীয় পর্যায়ের নেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন এই এলাকার বিএনপির অনেক সচেতন মহল।

তারিখ: ০২-০৪-২০১৬/কুইকনিউজবিডি/রাকিব/ সময়: ০৯:৪৮