১৫ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ১লা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ৮:২৫

লোহাগড়ায় জমে উঠেছে কুটির শিল্প-বাণিজ্য মেলা

শরিফুল ইসলাম নড়াইল প্রতিনিধি : নড়াইলের লোহাগড়ায় জমে উঠেছে মাস ব্যাপি লোকনাট্য সার্কাস প্রদর্শণী, কুটির শিল্প-বাণিজ্য মেলা। বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষের সমাগমে যেন মুখরিত হয়ে উঠেছে লক্ষীপাশা আদর্শ বিদ্যালয়ের সবুজ শ্যামলে ঘেরা খেলার মাঠ।


সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, গত ২৬ ফেব্রুয়ারি নড়াইল জেলা প্রশাসন ৩ মার্চ থেকে ২২ মার্চ পর্যন্ত বিশ দিনব্যাপি কুটির শিল্প বাণিজ্য মেলা, সার্কাস ও লোকনাট্য অনুষ্ঠানের অনুমতি দেয়। আয়োজক কমিটির প্রস্তুতি নিতে দেরি হলেও লক্ষীপাশা আদর্শ বিদ্যালয় মাঠে ৫মার্চ রাতে লোকনাট্য অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য শেখ হাফিজুর রহমান। প্রাকৃতিক দুর্যোগ থাকায় ৬মার্চ ও ৭ মার্চ মেলার কার্যক্রম বন্ধ রাখা হয়। ৯মার্চ বিকাল থেকে লাকী সেভেন স্টার সার্কাস প্রদর্শনীর মধ্যদিয়ে পুরোদমে নতুন উদ্দিপনা নিয়ে মেলা আবার শুরু হয়েছে। ২০/২৫ বছর আগের যাত্রা শিল্পের সেই সুনিপুন পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে লক্ষীপাশা আদর্শ বিদ্যালয়ের মাঠের মঞ্চে। আয়োজকদের যেন সুস্থ যাত্রাপালা ফিরিয়ে আনবার প্রাণপণ চেষ্টা চলছে। যাত্রা প্রদর্শনী মঞ্চে আগের সেই দর্শক ফিরিয়ে আনতে অশ্লীলতাকে ঘোষণা দিয়ে বয়কট করা হয়েছে। উদ্দেশ্য, যেন সবাই বলতে পারে, আগের সেই যাত্রাপালা আবারো ফিরে এসেছে। মানুষ অশ্লীলতা চায় না। বিনোদনের সুস্থ ধারা বেঁচে থাকবে।


আয়োজক কমিটির অন্যতম কর্ণধর বাংলাদেশ যাত্রা শিল্প উন্নয়ন পরিষদের ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বলাকা শিল্প গোষ্ঠির পরিচালক মোঃ জাকির হোসেন বলেন, লক্ষীপাশা আদর্শ বিদ্যালয় মাঠে সুস্থধারার অশ্লীলমুক্ত যাত্রা পালা করতে জনপ্রতিনিধি, শিক্ষক সহ রাজনৈতিক নেতাদের অনেক সহযোগিতা পেয়েছি। গ্রামের মানুষকে পরিচ্ছন্ন যাত্রা-অভিনয় দেখাতে পারছি। বলাকা শিল্প গোষ্ঠি ও রংমহল অপেরার যৌথ পরিবেশনায় শুক্রবার থেকে ”দেবি সুলতানা, মায়ের চোখে জল, লালন ফকির, নবাব সিরাজউদ্দৌলা” নামে যাত্রা পালা মঞ্চস্থ হবে। এসব যাত্রা পালায় অভিনয় করছেন পূর্ণিমা ব্যানার্জি, প্রণব মন্ডল,অরুণ,বিণয়, অমল বিশ্বাস টুকু,মমতা,সন্ধ্যাসহ আরও অনেকে।


লক্ষীপাশা আদর্শ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শেখ হাসানুজ্জামান এবং লোহাগড়া-লক্ষীপাশা পাইলট উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কে,এম রেজাউল ইসলাম বলেন, আমরা স্কুলের উন্নয়নে আয়োজিত এ মেলায় যাত্রা সংস্কৃতির সুস্থ ধারা প্রতিষ্ঠিত করতে পেরেছি। বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সদস্য মোঃ জাহিদুল ইসলাম বলেন, আমরা দীর্ঘ কয়েক যুগ পর সুস্থ ধারার যাত্রা পালা দেখলাম। শিশু, যুবক সহ সব শ্রেণির মানুষ প্রতিদিনই আসছে মেলার মাঠে। দীর্ঘদিন পর সুস্থধারার বিনোদনের সম্মুখীন সকলে। লক্ষীপাশা আদর্শ বিদ্যালয় এবং লোহাগড়া-লক্ষীপাশা পাইলট উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের আর্থিক সহযোগিতার উদ্দেশ্যে এলাকাবাসীর অনুরোধে বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ এবং মেলা পরিচালনা পর্ষদ যৌথভাবে মেলার আয়োজন করে।

কুইকনিউজবিডি.কম/খায়রুজ্জামান / ৯ই মার্চ, ২০১৭ ইং/রাত ৯:৫৫