১৬ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ২রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ৭:১২

১২ লক্ষাধিক টাকা স্বর্ণালঙ্কারসহ প্রবাসীর স্ত্রী উধাও!

ফরিদগঞ্জ পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডস্থ পূর্ব বড়ালী গ্রামের শারমিন আক্তার পপি (২১) নামে এক প্রবাসীর স্ত্রী নগদ অর্থ ও স্বর্ণালঙ্কারসহ ১২ লক্ষাধিক টাকার মালামাল নিয়ে রাতের অাঁধারে পালিয়ে গেছে। গত ৩০ ডিসেম্বর শুক্রবার মধ্য রাতে পরকীয়া প্রেমিকের হাত ধরে পপি পালিয়ে যায় বলে দাবি করেছেন পপির শ্বশুর অবসরপ্রাপ্ত বিজিবি সদস্য আবুল খায়ের পাটওয়ারী।

 

জানা যায়, ঐ গ্রামের ছিদ্দিক আলী গাজী বাড়ির (ঠাকুর বাড়ি) অবসরপ্রাপ্ত বিজিবি সদস্য আবুল খায়ের পাটওয়ারীর ছেলে সৌদি প্রবাসী মোঃ অপু পাটওয়ারী বছর দেড়েক আগে বিয়ে করেন পৌরসভার সাফুয়া গ্রামের মৃত রুহুল আমিনের মেয়ে শারমিন আক্তার পপিকে। বিয়ের পর পপি সুকৌশলে তার স্বামীকে চাপ সৃষ্টি করে শ্বশুর-শাশুড়িকে পার্শ্ববর্তী বদরপুর গ্রামে পাঠিয়ে দেয়। কোনো সন্তান না থাকায় একা ঘরেই থাকতেন পপি। এভাবে ক্রমান্বয়ে চালিয়ে যায় পরকীয়া প্রেম। আর সেই পরকীয়ার টানেই নগদ অর্থ ও স্বর্ণালঙ্কারসহ বাড়ির মূল্যবান সকল মালামাল নিয়ে ঘর ছাড়ে সে। এ ঘটনায় ফরিদগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি হয়েছে বলে জানা গেছে। এছাড়াও গত ১ জানুয়ারি রোববার এ বিষয়ে ফরিদগঞ্জ পৌরসভার মেয়রের নিকট একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন পলাতক শারমিন আক্তার পপির শ্বশুর আবুল খায়ের পাটওয়ারী।

 

অভিযোগ পত্রে উল্লেখ করা হয়, প্রবাসী অপু পাটওয়ারী বাড়িতে বিল্ডিং করার জন্যে পর্যায়ক্রমে স্ত্রী পপির কাছে নগদ ৮ লাখ টাকা পাঠায় এবং বিয়ের পর হতে তাকে দেয়া হয় মোট ৪ভরি স্বর্ণ। নগদ অর্থ, স্বর্ণালঙ্কার ও ঘরের বৈদ্যুতিক পাখাসহ মোট ১২ লাখ টাকার মালামাল নিয়ে পালিয়ে যায় সে। এ বিষয়ে শারমিন আক্তার পপির বাড়িতে একাধিকবার খোঁজ নিলেও তারা এ বিষয়ে কিছুই জানে না বলে জানিয়েছেন। মেয়েকে না পাওয়ার বিষয়ে পপির মা ও বড় ভাইয়ের মধ্যে কোনো প্রতিক্রিয়াও লক্ষ্য করা যায়নি।

 

কুইকনিউজবিডি.কম/অভি/৮ই মার্চ,২০১৭ ইং/সকাল ১১:৩৪

Save