১৪ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৩০শে কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ৪:২৩

কান্তা কামরুনের ২টি কবিতা

 : ফোঁটায় ফোঁটায় ঝরছে বিষ :

রোজ রাতে নতুন পাপের জন্ম উল্লাসে
মেলে ধরা রাতের ভিড়ে যদি মেলে একটি সজীব নিঃশ্বাস, অটুট প্রত্যাশায়।
রাতের দাম চাইনা বাবু, বহুঋন কাগজে কলমে লেখা আছে।
অধিকার পেলে, চন্দ্রমুখীর হয়ে চুকিয়ে দিতাম কিছুটা।
স্যুটবুটে দিনের আলোয় যারা ঝলমলিয়ে ওঠে,
তারাই খুঁজতে বেরোয় অন্ধকারের আলাদা মানে।

গোঁফের আড়ালে শুধুই আড়াল মলিন লাম্পট্য
উপর দিকে থুতু মারলে নিচের দিকেই পড়ে
দিনশেষে নর্দমা হাতড়ে কি কঠিন সুখের আশির্বাদে
ঠিকানা বিহীন এক নবজাতকের কান্না!
বুঝি না বাবু তোমাকে, তোমাদেরকে।
থুতুর আড়ালে নগ্ন কবিতা বারবার তারা ধর্ষণে মরিয়া।

তোমার মতো সবার মুখেই যে মুখোশ।
হতে চেয়েছিলাম তোমার তুমি সবার করে দিলে!!
সর্বনাশের কথা নিজের মুখেই বলি
অহর্নিশ ফোঁটায় ফোঁটায় ঝরছে বিষ অকাতরে।

একুশের বই মেলায় বিটিভি’র ক্যামেরায় কবি কান্তা কামরুন

 : অবৈধ যৌবনের চুম্বন :

বেদনার করুণ রসে তোমার পা ধোয়াবো বিধায়
অবৈধ যৌবনের চূর্ণ নিমপাতার জল হয়ে উঠেছিলাল সেদিন
তুমি হয়তো জানোনা আর কতোটুকু জানানো যায় বিজ্ঞাপনে, পত্রিকার শিরোনামে, মিডিয়ায়
এতো সাবান শ্যাম্পু ফ্ল্যাট বিক্রির বিজ্ঞপ্তি নয়!
তুমুল বেগে দ্রবীভূত করতে চেয়েছি ব্যবধান,
তোমার আমার, আমাদের মধ্যকার।

শৈশবের পাতানো খেলা চুকিয়ে দিতে
চাইলেই কি পারা যায় সব চুকিয়ে দিতে?
সমস্ত লেনদেন? যায়না তবু।
বৃত্তের বাইরের টুকুন তুমি জানো না!
তোমার জানতে নেই।

বার্ধক্যে ভাঙচুর শরীর গলিয়ে মলিন প্রেম
কেবল তোমায়,
কেবলই তোমার প্রাসাদ পানে ছুটছে
বিরামহীন এই ছুটে চলা।
তোমার জানা নেই! বলে ওঠে নিমগ্ন তুলোর বিছানা চোখে আঙুল গুঁজে,
আমার নৈসর্গিক একাকিত্বের কথা।

এই সমাজ সংসার কি আমার জন্য নয়!
উষ্ণতার ঘামে যেটুকু, সেটুকু কখনো আমার জন্য ছিলো না
ছিলো না এমিবার, পাখিদের আর মাছেদের কাব্যের।
তুমি আবার বলবে চাই রনাঙ্গণ, চাই যুদ্ধ।

 

 

কুইকনিউজবিডি.কম/বিপুল/২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ইং/সন্ধ্যা ৬:০৫

 

 

 

 

,