২১শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৬ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | দুপুর ১২:৩৪

নীলফামারীতে বাল্য-বিবাহ দেওয়ায় ১০ জনের কারাদন্ড

মোঃ আইয়ুব আলী, নীলফামারীঃ নীলফামারীতে বাল্য-বিবাহ দেওয়ার সময় কনের বাবাসহ ১০জনকে কারাদন্ড প্রদান করেছে ভ্রম্যমান আদালত। ঘটনাটি ঘটেছে সদরের লক্ষ্মীচাপ ইউনিয়নের সহদেব বড়গাছা গাইবান্ধাপাড়া গ্রামে। সে ওই গ্রামের তোরাব আলীর অষ্টম শ্রেণী পড়–য়া তানজিনা খাতুন।
শনিবার (২৬ মার্চ) তাদের আটক করে বিভিন্ন মেয়াদে বিনাসশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেছেন ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক ও নীলফামারী সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা সাবেত আলী।
সাজাপ্রাপ্তরা হলেন, কনের বাবা তোরাব আলীকে ২৫ দিন, কনের আত্বীয় ময়নুল ইসলাম(২৮), আবু সায়িদ(৪৩),মনোয়ার হোসেন(২৫) সহ তিন জনকে ২০দিন করে ও বরের আত্বীয় ও বরযাত্রীদের মধ্যে দবিরউদ্দিন(৩৫), উমর ফারুক(৩৫), আব্দুর রহিম(২৫), আবু বক্কর সিদ্দিক(৪৫), আব্দুল আলিম(২৮) ও সিরাজুল ইসলামের(৩০) সহ ৬ জনকে ১৫ দিন করে কারাদন্ড প্রদান দেয়।
নীলফামারী থানার ওসি শাহজাহান পাশা জানান, তাদের জেলা কারাগারে প্রেরন করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেন ।
অভিযোগ মতে ওই অষ্টম শ্রেনীর ছাত্রীর সাথে জোড়পূর্বক বাল্য-বিবাহ দেয়া হচ্ছিল জেলার ডিমলা উপজেলার বালাপাড়া ইউনিয়নের দক্ষিন সুন্দরখাতা গ্রামের মৃত মহিউদ্দিন ওরফে মালগাড়ীর ছেলে সাইফুল ইসলামে(২২) সাথে। শুক্রবার গভীর রাতে ডিমলা থেকে বরযাত্রী আসে কনের বাড়িতে। গোপনে সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে অভিযান চালান উপজেলা নির্বাহী কর্মকতা সাবেত আলী, থানার ওসি শাহজাহান পাশা।
তারিখ: ২৭-০৩-২০১৬/কুইকনিউজবিডি/রাকিব/ সময়:-০৯:৫৭