২২শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৭ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সন্ধ্যা ৭:২৬

হিলি সীমান্তে অস্ত্র-গুলি দিয়ে এক ব্যক্তিকে ফাঁসানোর অভিযোগ

মোঃ আফজাল হোসেন, দিনাজপুর প্রতিনিধি: দিনাজপুরের হাকিমপুর উপজেলার সীমান্ত ঘেষা বাংলা হিলি সীমান্তের বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) বিরুদ্ধে এক ব্যক্তিকে বিদেশি অস্ত্র ও গুলি দিয়ে ফাঁসানোর অভিযোগ উঠেছে। পরিবার ও একজন জনপ্রতিনিধি এই অভিযোগ করেন। আটককৃত মোঃ গোলাপ হোসেন (৪৫), হাকিমপুর উপজেলার ধরন্দা গ্রামের মৃত সবের আলীর পুত্র। গত বৃহস্পতিবার দিবাগত মধ্যরাতে পিস্তল, গুলি ও ম্যাগজিন সহ তাকে আটক করে জয়পুর হাট ২০বিজিবি সদস্যরা।

বিজিবির বাংলা হিলি সিপি ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার মোঃ আব্দুল মান্নান জানান, গত রাত সাড়ে ১১টার দিকে সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে চোরাচালান প্রতিরোধে সীমান্তে টহলে যায়। এসময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ধরন্দা গ্রামের মোঃ গোলাপ হোসেনের বাড়ীতে অবৈধ মালামাল মজুদের খবর পেয়ে তার নেতৃত্বে বিজিবি সদস্যরা সেখানে উপস্থিত হয়। এসময় মোঃ গোলাপের শোবার ঘরের তোষকের নীচ থেকে আমেরিকার তৈরী ১টি নাইন এমএম পিস্তল, ২টি ম্যাগজিন ও ৭ রাউন্ডগুলি উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে মোঃ গোলাপকে আটক করে অস্ত্র আইনে হাকিমপুর থানায় মামলা দায়েল করেছে।

এদিকে মোঃ গোলাপের স্ত্রী মোছা. সবিনা বেগম অভিযোগ করে সাংবাদিকদের বলেন, সুবেদার মান্নান, ল্যান্সনায়েক মোঃ নুরুল ইসলাম, সিপাহী মোঃ আল আমিন, মোঃ শাহিন, মোঃ সোহেল, মোঃ সাইফুল ও মোঃ আনিছুর রাত প্রায় ১২টার দিকে আকস্মিকভাবে বাড়ীতে ঢুকে আমার শোয়ার ঘরে গিয়ে তোষকের নীচে কাপড়ে মুড়ানো একটি বস্তুগুজে রাখে। ঘটনাটি প্রত্যক্ষ করা কালে আমার স্বামী মোঃ গোলাপ ও আমি বলি আপনারা কি করছেন। তখন তারা অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে আমার স্বামীকে তুলে নিয়ে যায়। এরপরেই জানতে পারি আমার স্বামীকে অস্ত্র দিয়ে মামলা করেছে বিজিবি সদস্যরা।

এই মামলার ১ নম্বর স্বাক্ষী হাকিমপুর পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ আবু বক্কর সিদ্দিক জানান, রাত ১১টা ১৯ মিনিটে হিলি সিপি ক্যাম্পের বিজিবি সদস্যরা আমাকে কিছু না জানিয়ে বাড়ী থেকে ডেকে নিয়ে যায়। তাদের সাথে গিয়ে দেখি বিজিবির ল্যান্স নায়েকমোঃ নুরুল ইসলামের সাথে ঘরের ভিতরে মোঃ গোলাপ ও তার স্ত্রীর বাক-বিতন্ডা হচ্ছে। এসময় শুনতে পাই মোঃ গোলাপ ও তার স্ত্রী বিজিবির মোঃ নুরুলকে বলছে সামান্য ভুলের জন্য আমাদের অস্ত্র দিয়ে ফাঁসাচ্ছেন। এর বিচার আল্লাহ করবে? তখন তারা মোঃ গোলাপকে নিয়ে যায়। এঘটনাটি আমি জয়পুরহাট ২০ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক হাকিমপুর থানার অফিসার ইনর্চারকে অবহিত করেছি।

হাকিমপুর থানার অফিসার ইনর্চার মোঃ আব্দুস সবুর জানান, হিলি সিপি ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার আব্দুল মান্নান আজ শুক্রবার বাদী হয়ে মোঃ গোলাপকে আসামী করে তার বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা (মামলা নং- ৩৭, তাং-৩০.১২.১৬ইং) করেছে। মোঃ গোলাপকে অস্ত্র দিয়ে ফাঁসানো হয়েছে বলে জনপ্রতিনিধি সহ বিভিন্ন সুত্রে শুনেছি। ঘটনাটি তদন্ত করে দেখা হবে।
এ ব্যাপারে বেলা সাড়ে ১১টায় থানায় এক প্রেসব্রিফিংয়ে জয়পুরহাট- ২০ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্ণেল মো. ইমতিয়াজ চৌধুরী সাংবাদিকদের জানান, গত দুই বছর আগে মোঃ গোলাপের ঘনিষ্ট বন্ধু মোঃ আলমকে র‌্যাব আটক করে।

তারই দেওয়া তথ্য এবং আমাদের গোয়েন্দা সুত্রের ভিত্তিতে মোঃ গোলাপকে অস্ত্র ও গুলি নিয়ে আটক করা হয়েছে। মোঃ গোলাপ ভারত থেকে অস্ত্র ও গুলি এনে বাড়ীতে রেখেছিল। তবে তাকে ফাঁসানো হয়েছে বলে তার পরিবার ও একজন জনপ্রতিনিধি এমন দাবী নাকচ করেন বিজিবির এই কর্মকর্তা। এ ব্যাপারে মোঃ গোলাপের স্ত্রী মোঃ সবিনা বেগম উধ্বর্তন কর্তৃকপক্ষে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে এবং মিথ্যা মামলা থেকে তার স্বামীকে মুক্তি দেওয়া দাবী জানান।

 

 

কুইকনিউজবিডি.কম/ মুরাদ /৩০শে ডিসেম্বর, ২০১৬ ইং/সন্ধ্যা ৭:১২