২১শে অক্টোবর, ২০২০ ইং | ৫ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | সন্ধ্যা ৭:০৯

বিট পুলিশিংয়ে সফলতা পাচ্ছে শেরপুর থানা

 

আবু জাহের, শেরপুর (বগুড়া) : বগুড়ার শেরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান এবার বিট পুলিশিং গড়ে সফলতা পেতে শুরু করেছেন। করোনা মহামারির মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ‘পুলিশিং সেবা মানুষের দ্বারে’ স্লোগানকে প্রতিপাদ্য করে বিট পুলিশিং কার্যক্রম সফল করতে কাজ করে যাচ্ছেন তিনি। এ পর্যন্ত ১১টি বিট কার্যালয় উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে শেরপুর থানা ছোট বড় ১শ ৫৩জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে।

শেরপুর থানা সূত্রে জানা যায়, স্বল্প সময়ে জনগণের দোড়গোড়ায় আইনি সেবা প্রদানের লক্ষ্যে এবং নির্দিষ্ট এলাকার আইন শৃঙ্খলা বজায় রাখতে বিট পুলিশিং কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। বিট পুলিশিং কার্যক্রমে একজন এসআই (উপ-পরিদর্শক) নির্দিষ্ট একটি এলাকার দায়িত্বে থাকবেন। সেই এসআই ওই এলাকার জনগণকে দ্রুততার সাথে আইনি সেবা দেবেন। আইনি সেবা প্রদান প্রয়োজন অনুসারে জনগণের দোড়গোড়ায় যাবেন। সেই সেবা শেরপুর থানার প্রতিটি ঘরে ঘরে পৌঁছে দিতে কাজ শুরু করেছেন শেরপুর থানা পুলিশ।
বিট কার্যক্রম শুরু করার পর নির্দিষ্ট এলাকার জনগণের কাছ থেকে মাদক ব্যবসায়ী, মাদকসেবী, দালাল, ছিনতাইকারীদের তথ্য আসতে শুরু করেছে। পুলিশ সেই সব তথ্য নিয়ে আইনি প্রক্রিয়ায় কাজ করছে। ইতিমধ্যে পুলিশ সদস্যরা অভিযান চালিয়ে ছোট বড় ১শ ৫৩জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে। মাদক নির্মূলে এসব অভিযান পরিচালনা করা হয়।

বগুড়ার শেরপুর থানা অফিসার ইনচার্জ মিজানুর রহমান জানান, বিট পুলিশিং কার্যক্রম বাংলাদেশ পুলিশের অত্যন্ত ইতিবাচক একটি পদক্ষেপ, যা বাস্তবায়নে বগুড়া জেলা পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঞা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। তার নেতৃত্বেই শেরপুর থানা পুলিশ নিজেদের সর্বোচ্চ মেধা দিয়ে কাজ করে যাচ্ছে।নির্দেশনা মতে বিট নিয়ে কাজ শুরু হয়েছে। আমরা এখন এলাকা থেকে বিভিন্ন তথ্য পাচ্ছি যা পুলিশ সদস্যদের জন্য কাজে আসছে। এলাকাবাসীর দোড়গোড়ায় পুলিশ সদস্যরা সাধ্যমতে যাচ্ছেন। ওসি আরও জানান, এই কার্যক্রম করতে প্রতিটি এলাকার সাধারণ মানুষকে নিয়ে ওপেন মিটিং করে কাজ করা হচ্ছে। জনগণের সহযোগিতা নেওয়া হচ্ছে।

বিট কার্যালয়ের মাধ্যমে মানুষ সুফল পেতে শুরু করেছে এবং অপরাধ দমনে সাধারণ মানুষ পুলিশকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে। সকলের সহযোগিতায় অপরাধ, সন্ত্রাস ও মাদকমুক্ত শেরপুর থানা গড়ার লক্ষ্যে তিনি এবং তার পুরো টিম জিরো টলারেন্স নীতিতে কাজ করে যাবেন বলেও জানান।এদিকে, বগুড়ার শেরপুর উপজেলায় সর্বশেষ শেরপুর পৌর ১,২,৩ ওয়ার্য়ের বিট কার্যালয় উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে থানা এলাকায় সর্বমোট ১১টি বিট কার্যালয়ের যাত্রা শুরু হয়।

কিউএনবি/অনিমা/৫ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং/বিকাল ৩:৩৮

↓↓↓ফেসবুক শেয়ার করুন