১৯শে ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং | ৫ই পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ভোর ৫:৫৩

রুনা লায়লার সুরের জাদুতে মাতোয়ারা প্রবাসীরা

বিনোদন ডেস্ক: বর্ণাঢ্য সঙ্গীত জীবনের সুবর্ণ জয়ন্তীতে লন্ডনে গাইলেন ভারতীয় উপমহাদেশের খ্যাতিসম্পন্ন সংগীত শিল্পী রুনা লায়লা।

শনিবার লন্ডনের দ্যা সিটি পেভিলিয়নে তার একক সঙ্গীত সন্ধ্যায় উপস্থিত ছিলেন দুই বাংলার বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বাঙালিরা। স্থানীয় সময়ে সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় কয়েকজন শিশুশিল্পীর কবিতা আবৃত্তি ও গান পরিবেশনে শুরু হয় অনুষ্ঠান।

এরপর সাড়ে আটটা থেকে মধ্য রাত পর্যন্ত গানে গানে হলভর্তি দর্শক মাতিয়ে রাখেন সঙ্গীত জগতের জীবন্ত কিংবদন্তি শিল্পী রুনা লায়লা। তিনি পরিবেশন করেন দেড় ডজন জনপ্রিয় গান। এর মধ্যে ‘শিল্পী আমি’, ‘বন্ধু তিনদিন তোর বাড়িত গেলাম’, ‘সাধের লাউ’, ‘দমাদম মাসকালান্দার’, ‘দে দে পেয়ার দে’, ‘পান খাইয়া ঠোঁট লাল করিলাম’, ‘যখন থামবে কোলাহল’, ও ‘বাড়ির মানুষ কয় আমায় পাগল করেছে’র মতো জনপ্রিয় গানগুলো।

রুনা লায়লার জন্ম বাংলাদেশের সিলেটে আর শৈশব কেটেছে পাকিস্তানের করাচিতে যেখানে তিনি চার বছর নাচ শিখেছিলেন। সেখান থেকে নিজের অজান্তেই চলে আসেন গানে। মাত্র ১২ বছর বয়সে তিনি প্রথম চলচ্চিত্রের জন্য প্লেব্যাক করেন। মুক্তিযুদ্ধের পর ১৯৭৪ সালে লাহোরের খ্যাতি ছেড়ে বাংলাদেশে চলে আসেন রুনা লায়লা।

বর্তমানে বাংলাদেশ, ভারত ও পাকিস্তানে সবাই তাঁকে এক নামে চেনেন এবং জনপ্রিয়তার শীর্ষে অবস্থান করছেন। ভারত-পাকিস্তানের একাধিক সংগীত রিয়ালিটি শোয়ের অন্যতম বিচারক মনোনীত হয়েছেন তিনি। নিজেকে মূলত একজন প্লেব্যাক সিঙ্গার মনে করেন রুনা লায়লা। কারণ তাঁর বেশিরভাগ জনপ্রিয় গানই চলচ্চিত্রের জন্য গাওয়া।

সংগীত জীবনের অর্ধশতকে তার সাফল্যের ঝুড়িতে জমা হয়েছে অসংখ্য পুরস্কার। রুনা লায়লা প্রথম প্লেব্যাক করেন উর্দু ছবি ‘জুগনু’-তে। ষাটের দশকে বাংলা চলচ্চিত্রের গানে প্রথম কণ্ঠ দেন তিনি। বাংলা সিনেমায় প্রথমবারের মতো মাহমুদুন্নবীর সঙ্গে ‘গানের খাতায় স্বরলিপি লিখে’ শিরোনামের দ্বৈত সংগীতে কণ্ঠ মেলান গানের কোকিল রুনা।

রুনা লায়লা এপর্যন্ত জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন ছয়বার। অর্জন করেছেন স্বাধীনতা পদক, ভারতের সায়গল পুরস্কার, পাকিস্তানের ক্রিটিকস পুরস্কার, ন্যাশনাল কাউন্সিল অব মিউজিক পুরস্কারসহ (স্বর্ণপদক) আরও অনেক পুরস্কার।

সংগীতানুষ্ঠান পরিচালনা করেন লায়লা রহমান। বিপুল সংখ্যক দর্শকদের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন ব্যারোনেস পলা মঞ্জিলা উদ্দিন।

কুইকনিউজবিডি.কম/বিপুল/২৫.০৯.২০১৬/১০:৩০