২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ইং | ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ১০:০৭

ভুয়া কাগজপত্র দেখিয়ে পুলিশে যোগদান কালে আটক হলো ময়মনসিংহের ভুয়া সাব ইন্সপেক্টর আবু রায়হান

অরুন শীল, রাজশাহী থেকে :বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমী সারদায় ভুয়া কাগজপত্র দেখিয়ে পুলিশে যোগদান কালে আটক হলো ভুয়া সাব ইন্সপেক্টর পরিচয়দানকারী আবু রায়হান। রোববার রাতে রায়হানকে আটক করে চারঘাট মডেল থানা পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে একাডেমীর ক্যাডেট শাখায় কর্মরত পুলিশ পরিদর্শক (নিরঃ) শেখ এনামুল হক বাদী হয়ে প্রতারক আবু রায়হানের বিরুদ্ধে চারঘাট মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।
মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে চারঘাট মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ নিবারন চন্দ্র বর্মন জানান, ৩৫ তম বহিরাগত ক্যাডেট এসআই হিসেবে ময়মনসিংহ জেলার সদর থানার চররাঘব গ্রামের বদিউজ্জামানের ছেলে আবু রায়হান রোববার দুপুরের দিকে বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমী সারদায় প্রবেশ করেন। এরপর একাডেমীর এলপি-২ এর দায়িত্বে সহকারী উপপরিদর্শক আজাদুল হক ও বহিরাগত ক্যাডেট এসআই ব্যাচের ১৩ নং কোম্পানীর সিএইচএম এর সহকারী উপপরিদর্শক শাহান আলী উক্ত আবু রায়হানকে ক্যাডেট শাখায় যোগদানের জন্য হাজির করেন। এ সময় আবু রায়হান যোগদানের জন্য ময়মনসিংহ জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার স্মারক নং ১২৩৭৭ তারিখ ০২/০৯/২০১৬ খ্রিঃ মুলে জেলা বিশেষ শাখা ময়মনসিংহ স্বাক্ষরিত নোটিশের কপি, প্রবেশপত্র যাহাতে রোল নং-ময়মনঃসাধাঃ ১৩০০৪ সহ যোগদানের জন্য স্ব-হস্তে রিখিত মানীয় প্রিন্সিপ্যাল বরাবর আবেদন দাখিল করেন। পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স হতে প্রেরিত ২০১৫ সালের নির্বাচিত ৩৫ তম বহিরাগত ক্যাডেটদের চুড়ান্ত তালিকা যাচাই ও পর্যালোচনা করে উল্লেখিত আবু রায়হানের বার্নিত নাম, ঠিকানা ও রোল নম্বর পাওয়া যায়ন্ িপরে ময়মনসিংহ জেলা বিশেষ শাখায় একাডেমী কর্র্তৃপক্ষ যোগাযোগ করলে সেখান থেকেও জানানো হয় এখান থেকে কোন ধরনের স্মারক দেয়া হয়নি। এ সময় একাডেমী কর্তৃপক্ষ অনেকটা নিশ্চিত হয়ে প্রতারক আবু রায়হানকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে বিভিন্ন ধরনের ছলচাতুরী মুলক কথাবার্ত বলতে থাকে। এক পর্যায়ে প্রতারক আবু রায়হানের জালিয়াতির ঘটনা সম্পুর্নরুপে সঠিক ভাবে বিিেচত হয়। পরে একাডেমী কর্তৃপক্ষের মামলার প্রেক্ষিতে রোববার রাতে তাকে আটক করে থানায় এনে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এ সময় আবু রায়হান এ ঘটনার সাথে জড়িত অন্য একজনের নাম পরিচয় প্রকাশ করে পুলিশের নিকট।
এ ব্যাপারে ওসি আরো বলেন, এমন চক্র এখন সারা দেশেই ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে। যারা পুলিশের চোখ ফাকি দিয়ে প্রতারনা করে টাকা হাতিয়ে ন্য়োর কাজে লিপ্ত রয়েছে। এদের ব্যাপারে সকলকে সজাগ থাকার আহ্বান ওসি নিবারন চন্দ্র বর্মনের।

কুইকনিউজবিডি.কম/সাকিব /১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ইং/ সন্ধ্যা ৮.২৬