২১শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ১১:৫০

রাজশাহীতে বেড়েছে সব সবজির দাম, কাঁচা মরিচের কেজি ১৮০

 

অরুন শীল রাজশাহী থেকে :   রাজশাহীতে মরিচের ঝালে ক্রেতাদের অস্থির অবস্থা। খুরচা বাজারে শনিবার প্রতি কেজি মরিচ বিক্রি হতে দেখা গেছে ১৮০ টাকা। বন্যায় ফসলের ক্ষেত নষ্ট হয়ে যাওয়ার কারণে মরিচের দাম বেড়েছে বলে বিক্রেতারা জানিয়েছেন। শুধু মরিচই নয়। বন্যার পরে অন্য সবজির দামও বাজারে বেড়েছে।
রাজশাহীতে বন্যায় নষ্ট হয়েছে ৪৭ হাজার হেক্টর জমির ফসল বলে জানিয়েছে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর। তাদের প্রাথমিক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাজশাহীর এই তিন উপজেলায় মোট ৪৬ হাজার ৮৫১ হেক্টর জমির ফসলের ক্ষতি হয়েছে। এর মধ্যে এক হাজার ২০ হেক্টর জমির ফসল পুরোপুরি পানিতে নিমজ্জিত হয়েছে। এর মধ্যে পবা উপজেলায় বন্যার কারণে ৫২০ হেক্টর মরিচের ফসল নষ্ট হয়ে গেছে। এছাড়াও অন্য উপজেলাগুলোর আরো ৩০০ থেকে ৪০০ হেক্টর জমির মরিচ নষ্ট হয়ে গেছে। বন্যায় বিপুল পরিমানে ক্ষেতের মরিচ নষ্ট হয়ে যাওয়ার কারণে বাজারে মরিচের দাম দিনে দিনে বাড়তেই আছে। মাত্র এক সপ্তাহ ব্যবধানে মরিচের দাম কেজিতে ৭০ থেকে ৮০ টাকা বেড়েছে। রাজশাহী মহানগরীর সাহেববাজার এলাকার সবজি বিক্রেতা আব্দুর রহিম জানান, বন্যার পরে বাজারগুলোতে চাহিদা অনুযায়ি মরিচ আমদানি হচ্ছে না। সে কারণে মরিচের দাম বাড়ছে। রাজশাহীর উপশহর এলাকার সরকারি চাকুরিজীবী জমশেদ আলী সকালে সাহেব বাজার কাঁচা বাজারে সবজি কেনার জন্য গিয়েছিলেন। তিনি জানান, এক সপ্তা আগে বাজার থেকে মরিচ কিনেছিলেন ১০০ টাকা কেজি। সাত দিনের ব্যবধানে বাজার থেকে মরিচ কিনতে হচ্ছে ১৭০ থেকে ১৮০ টাকা কেজি দরে।
মরিচের পাশাপাশি অন্য সবজিগুলোর দামও বেড়েছে। শনিবার রাজশাহীর বাজারে শসা বিক্রি হচ্ছে ৬০ থেকে ৭০ টাকা কেজি, পটল বিক্রি হয়েছে প্রতি কেজি ৪০ টাকায়, বেগুন ৪০ থেকে ৪৫ টাকা, ঢেঁড়শ ৩৫ থেকে ৪০ টাকা, করলা ৫০ টাকা ও কাঁচা কলা ২৫ টাকা প্রতি হালির দাম। এছাড়াও শাকের বাজারে পুঁই শাক ২০ টাকা ও লাল শাক ২৫ থেকে ৩০ টাকা কেজিতে বিক্রি হতে দেখা গেছে। জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক দেব দুলাল ঢালি বলেন, বন্যায় ফসলের ক্ষেত ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এ কারণে বাজারে সবজির দাম বেড়েছে।

 

কুইকনিউজবিডি.কম/জিয়া /১৯শে সেপ্টেম্বরটেম্বর, ২০১৬ ইং/ রাত :৩:৪৯