৭ই জুন, ২০২০ ইং | ২৪শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | সকাল ৬:৪৯

২২ ঘন্টা রোজা রাখতে হয় যে শহরে

 

ডেস্ক নিউজ : উপবাস আর আত্নসংযমের মধ্যদিয়ে সিয়াম পালন করছে সারা বিশ্বের মুসলমান। কিছু কিছু দেশ ও শহর আছে যেখানে দিন দীর্ঘ হয়, তাই অধিবাসীদেরও দীর্ঘসময় রোজা রাখতে হয়। তেমনি একটি শহর উত্তর গোলার্ধের রেইকিয়াভিক। এটি আইসল্যান্ডের রাজধানী ও সবচেয়ে বড় শহর। এ শহরে দিনের আলো থাকে ২১ ঘন্টা। ফলে শহরের মুসলিমদের উপবাস থাকতে হয় দীর্ঘ ২২ ঘন্টা। রাতে খাওয়া দাওয়ার জন্য তারা সময় পান মাত্র ১ ঘন্টা ৩০ মিনিট। রেইকিয়াভিকে বাস করেন প্রায় ১ হাজার মুসলিম। শহরে সূর্যাস্ত হয় ১২ টা ২ মিনিটে। আর তার দেড় ঘন্টা পরই ১ টা ৩০ মিনিটে ফজরের আজান হয়। ফলে মুসলিমরা দীর্ঘ ২২ ঘন্টা রোজা রাখেন এ শহরে। সক্ষম মানুষরা এটি মেনে চললেও বৃদ্ধ, অসুস্থ ও গর্ভবতী নারীরা ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী অনেক সময় দীর্ঘ রোজা রাখেন না। 

এ বিষয়ে ব্রিটিশ ইসলামি থিংক ট্যাঙ্ক কুইলিয়াম ফাউন্ডেশনের শেখ ড. উসামা হাসানের ফতওয়া হচ্ছে- যারা উত্তর গোলার্ধে বসবাস করেন তারা প্রয়োজন ও পরিস্থিতি বুঝে ১২,১৪ বা ১৬ ঘন্টা রোজা রাখতে পারেন। তবে এ বক্তব্যের সঙ্গে দ্বিমত পোষণ করে নিউইয়র্ক ইউনিভার্সিটির ইসলামিক সেন্টারের নির্বাহী পরিচালক ইমাম খালিদ লতিফ বলেন, ‘সময় অনুযায়ী উপবাস থাকা উচিত। যদি দীর্ঘ দিনের সময়কে কমিয়ে এনে রোজা রাখা হয় তবে তাতে সমস্যা হতে পারে। যেমন আলাস্কাতে ১৯ ঘন্টা রোজা রাখতে হবে এবং হেলসিনকিতে ১৮ ঘন্টা। এর বিপরীতে বুয়েনোস আইরেস শহরে মাত্র ৯ ঘন্টা রোজা রাখতে হয়। 

সূত্র: গাল্ফ টুডে

 

 

কিউএনবি/আয়শা/১০ই মে, ২০২০ ইং/বিকাল ৫:০৯

↓↓↓ফেসবুক শেয়ার করুন