২১শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৬ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | দুপুর ১২:২৯

তেঁতুলিয়া গ্রামের ঈদগাহে লাখ টাকা দান মুস্তাফিজের

স্পোর্টস ডেস্ক :  শুধু বাংলাদেশ নয়, মুস্তাফিজুর রহমান এখন পুরো ক্রিকেট বিশ্বেরই অমূল্য সম্পদ। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেকের মাত্র এক বছরের মধ্যে এত সাড়া জাগাতে পেরেছেন খুব কম ক্রিকেটারই। ক্রিকেট অঙ্গনে নিরন্তর চলছে মুস্তাফিজ-বন্দনা।

তবে মুস্তাফিজ নিজে কিন্তু খুব বেশি বদলাননি। এখনো থেকে গেছেন সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ উপজেলার তেঁতুলিয়া গ্রামের সেই সাদামাটা মানুষ হিসেবেই। যে গ্রামের আলো-হাওয়ায় বেড়ে উঠেছেন, সেখানকার উন্নয়নের দিকেও সজাগ দৃষ্টি ‘ফিজের’। এবারের ঈদে তাই ঈদগাহর উন্নয়নের জন্য মুস্তাফিজ দান করেছেন এক লাখ টাকা।

গত ঈদুল ফিতরে ভালো সময় কাটাতে পারেননি মুস্তাফিজ। সব আনন্দ, খুশি ম্লান হয়ে গিয়েছিল বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে তাঁর চাচাতো ভাই মোতাহারের আকস্মিক মৃত্যুতে। ঈদ জামাতে যাওয়ার মুহূর্তে এই দুর্ঘটনায় ভেঙে পড়েছিলেন মুস্তাফিজ। এবার সেই বেদনা চেপে রেখে নিজেকে সঁপে দিয়েছেন ঈদুল আজহার ত্যাগের মহিমায়। কোরবানি দিয়েছেন দুই লাখ টাকায় কেনা নেপালি জাতের গরু। সবার সঙ্গে ঈদের জামাতে অংশ নিয়েছেন। ঈদের নামাজ শেষে এক লাখ টাকা দান করেছেন ঈদগাহর উন্নয়নে।

 

সমবেত মুসল্লিদের উদ্দেশে মুস্তাফিজ বলেছেন, ‘আমার গ্রামের এই ঈদগাহর উন্নয়নে আমি এক লাখ টাকা দিলাম। প্রয়োজনে আরো দেব।’

মুস্তাফিজের এই ঘোষণায় তাঁর জন্য আরো বেশি করে দোয়া করলেন গ্রামের মানুষ। সবার আশা, তাঁদের মুস্তাফিজ বিশ্বক্রিকেটে অপ্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে থাকবেন।

এদিকে মুস্তাফিজকে ঈদের শুভেচ্ছা জানাতে তাঁর বাড়িতে এসেছেন শত মানুষ। তাঁর বুকে বুক মিলিয়ে ঈদ মোবারক বলে করমর্দন করেছেন ছেলে-বুড়ো সবাই। প্রাণ খুলে দেখেছেন সেই মানুষটাকে, যিনি তটস্থ করে রেখেছেন বিশ্বের বাঘা বাঘা ব্যাটসম্যানদের।

প্রথমবারের মতো ভারতের ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি প্রতিযোগিতা, আইপিএলে অংশ নিয়েই জিতেছেন শিরোপা। ইংল্যান্ডের কাউন্টি ক্রিকেটে খেলতে গিয়েও প্রথম ম্যাচেই চমক জাগিয়েছিলেন মুস্তাফিজ। ইনজুরির কবলে পড়ায় অবশ্য আর খেলতে পারেননি। অস্ত্রোপচার করাতে হয়েছে কাঁধে। সেই ইনজুরি কাটিয়ে মুস্তাফিজ আবার দাপুটে ভঙ্গিতে ফিরে আসবেন, এমনটাই প্রত্যাশা বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমীদের।

কুইকনিউজবিডি.কম/জিয়া/১৩ই সেপ্টেম্বর ২০১৬/সন্ধ্যা ৬:২২