১৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং | ৭ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | সকাল ৬:৫২

“চকরিয়া খুটাখালী মেদাকচ্ছপিয়া বনবিট”বনে পশুখাদ্য বাগানের নামে ২০ লক্ষ টাকা লুট: বনভুমি জবরদখল

এম রায়হান চৌধুুরী চকরিয়া : কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের মেধাকচ্ছপিয়া বিটে পশু-পাখির খাদ্যের জন্য ফল, ফড়ার ও মিশ্র বাগান নামে ৩০ হেক্টর জমিতে বাগান করেন বনবিভাগ। কোন ঠিকাদার ছাড়াই নিজে লেভার দিয়ে বাগানটি করেন বর্তমান রেঞ্জ কর্মকর্তা ( তৎকালীন বিট কর্মকর্তা) সাইয়েদ জাকারিয়া। ২০ লক্ষাধিক টাকা ব্যয় দেখিয়ে জঙ্গলকে নামমাত্র সাইবোর্ড ঝুলিয়ে পাহারাদারের নামে ৪ টি ঘর বসিয়ে দেন তিনি। এর পর থেকেই ওই বাগানের জমিকে ভিটে হিসাবে কড়ায় গন্ডায় বিক্রী করা শুরু হয়। জানা যায়, গত এক মাসেই ওই এলাকায় আরো ৫টি নতুন বাড়ী তৈরী চলমান রয়েছে।

সরে জমিনে দেখা যায়, কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের ফুলছড়ি বনরেঞ্জের মেধা কচ্ছপিয়া বনে একটি আগাছা ওয়ালা জঙ্গলে “পশুর খাদ্যের জন্য ফল, ফড়ার ও মিশ্র খাদ্যের বাগান”র সাইনবোর্ড। ৩০ হেক্টর বাগান হলেও ১০ হেক্টরের সাইন বোর্ড লাগানো হয়েছে। ৩০ হেক্টরের ওই পাহাড়টিতে ১/২ বছর বয়সের  ১০০ থেকে দেড়শটি রোপিত চারাগাছের গোড়ালীর চিহ্ন দেখা গেলে ও আগা নাই। তাও ফলের বাগান নয়। ফরিদ ও আবুল কালাম নামের দুইজনের নেতৃত্বে পাহারাদার নিয়োগের নামে ঘর বসানো হয়েছে ৮-১০ টি। তৈরী হচ্ছে নতুন নতুন আরো মাটির ঘর।

পাহারাদার ফরিদ জানায়, গুরা মিয়া নামক এক ব্যক্তি সহ ১০/১২ জন সকলকে ঘর করে দিয়েছেন সাবেক এ বিটের দায়ীত্বে থাকা বর্তমান রেঞ্জ কর্মকর্তা সাইয়েদ জাকারিয়া নিজেই। গুরা মিয়া গত ১৫ দিন আগে এক লক্ষ টাকায় জোস্না বেগম নামের এক ইয়াবা কারবারী মহিলাকে আরো একটি বাড়ীভিটা বিক্রী করেছেন যেটি মাটির ঘর হিসাবে নির্মানাধীন রয়েছে। এ ব্যাপারে সাইয়েদ জাকারিয়ার সাথে কথা বলার জন্য একাধিকবার চেষ্টা করা হলে ও মিটিং এ ব্যস্ত থাকার অজুহাতে কথা বলতে পারেন নি। ঘর বাঁধার বিষয়টি নিয়ে বর্তমান নবাগত বিট কর্মকর্তা জসিম উদ্দিন বলেন, বনবিভাগে তো প্রতিদিন ঘর নির্মান হচ্ছে। লিখলে সবগুলো নিয়ে লিখেন। শুধু আমার গুলো নিয়ে মাথা ঘামান কেন? একটি আগাছা ওয়ালা জঙ্গলে “পশুর খাদ্যের জন্য ফল, ফড়ার ও মিশ্র খাদ্যের সাইনবোর্ড সর্বস্ব বাগান করে সরকারী টাকা আত্মসাতের বিষয়টি তদন্তে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষন করেছেন এলাবাসী ও সচেতন মহল।

 

 

কিউএনবি/আয়শা/৪ঠা ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং / সন্ধ্যা ৬:২০

↓↓↓ফেসবুক শেয়ার করুন