৮ই আগস্ট, ২০২০ ইং | ২৪শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | দুপুর ১:০১

দুর্গাপুরে অনিয়ন্ত্রীত লড়ি চলাচল বন্ধে রাস্তায় নেমেছ শিক্ষার্থীরা

তোবারক হোসেন খোকন,দুর্গাপুর(নেত্রকোনা)প্রতিনিধি : নেত্রকোনার দুর্গাপুর পৌরশহর দিয়ে অনিয়ন্ত্রিত ট্রাক, ট্রাক্টর ও লড়ি গাড়ী চলাচল করায় পৌরশহর বাসীর জনজীবন অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। এ অবস্থা থেকে নিরসন পেতে মঙ্গলবার দুপুরে ওই এলাকায় অবস্থিত বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীসহ স্থানীয় পথচারীরা এক বিক্ষোভ মিছিল করেছে।

এ নিয়ে সরেজমিনে গিয়ে দেখাগেছ, দুর্গাপুর তেরীবাজার ও আত্রাইখালী ঘাট থেকে পৌরশহর রাস্তা দিয়ে ভিজা বালুবাহী ট্রাক্টর চলাচলে ধ্বংস হচ্ছে শহরের সড়ক গুলো, চরম হুমকীতে জীবন-যাপন করছে স্থানীয় জনগন। কলেজ রোড এলাকার আদর্শবিদ্যাপিঠ দি চাইল্ড লার্নিং হোমস্, সুসঙ্গ আদর্শ বিদ্যানিকেতন প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়, সুসঙ্গ সরকারী মহাবিদ্যাল, দুর্গাপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, দুর্গাপুর মহিলা ডিগ্রি কলেজ এর শিক্ষার্থীরা দিনের বেলায় বেপরোয়া ট্রাক, ট্রাক্টর ও লড়ি চলাচল সেই সাথে নদী থেকে ভিজাবালু পরিবহন বন্ধে রাস্তায় মিছিল করে।

স্থানীয়রা জানান, পৌরশহরের কলেজ রোড, উপজেলা চত্বর, হাসপাতাল এলাকার রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন প্রায় ৪ থেকে ৫ শত ট্রাক্টর চলাচলে রাস্তার অবস্থা করুণ দশায় পরিণত হয়েছে। রাস্তা পার হওয়া তো দূরের কথা ঐ রাস্তা দিয়ে পথচারীদের চলাচল করাই কঠিন হয়ে পড়েছে। ঘন্টার পর ঘন্টা জ্যাম লেগে থাকে ঐ রাস্তায়। এতে করে নানা ধরণের প্রতিবন্ধকতা তৈরী হচ্ছে স্কুলগামী শিক্ষার্থীদের। রাস্তায় বিঘ্ন ঘটায় শিশুরা স্কুলে যেতে ভয় পাচ্ছে। বেলতলী এলাকার অনেক কাপড়ের দোকানী তাদের ব্যবসা ছেড়ে দিয়েছেন।

হাসপাতাল এলাকায় ঐতিহ্যবাহী দি চাইল্ড প্রিপারেটরী স্কুলের শিক্ষার্থীদের উপস্থিতিও কমে গেছে। মাঝে মধ্যে অবৈধ লড়ি চলাচল বন্ধে উপজেলা প্রশাসন মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করলেও বর্তমানে তা লোক দেখানো বলে মনে করছেন সচেতন মহল। প্রানের রাস্তা বাঁচাতে প্রয়োজনে বালু মহলের ইজারা বন্ধ করন সহ এ সমস্যা সমাধানে প্রশাসনের কঠোর ভূমিকা চান স্থানীয় নাগরিক সমাজ, ক্ষুদে শিক্ষার্থীসহ অভিভাবকবৃন্দ। স্থানীয় একটি সিন্ডিকেট চক্র প্রভাবশালী মহলের যোগসাজসে অবৈধ লাইসেন্স বিহীন লড়িগাড়ী অপ্রাপ্তবয়স্ক চালক দিয়ে বালু পরিবহন করাচ্ছে প্রতিনিয়ত।

এ নিয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফারজানা খানম বলেন, দুর্গাপুর পৌরসভা সহ আশপাশের ইজারাকৃত এলাকা থেকে ভিজাবালু পরিবহন নিষেধ করা হয়েছে। ইতোমধ্যে পথচারী ও শিক্ষার্থীদের চলাচলের সুবিধার্থে সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত রাস্তায় লড়ি চলাচল বন্ধেরও নির্দেশ দেয়া হয়েছে। বর্তমান অবস্থা নিরসনে উপজেলা প্রশাসন থেকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

কিউএনবি/রেশমা/১৪ই জানুয়ারি, ২০২০ ইং/রাত ১০:২৭

↓↓↓ফেসবুক শেয়ার করুন