১৫ই জুলাই, ২০২০ ইং | ৩১শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ভোর ৫:০৩

এখন থেকে দুপুরে রান্না করা খাবার পাবে শিক্ষার্থীরা

 

ডেস্ক নিউজ : কুড়িগ্রাম জেলার রৌমারী উপজেলায় রৌমারী মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা মঙ্গলবার দুপুরের টিফিন হিসেবে পেয়েছে রান্না করা গরম খিচুড়ি; সঙ্গে ডিম ভুনা। শিক্ষার্থীদের মাঝে এই রান্না করা খিচুড়ি বিতরণ করেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন ও একই মন্ত্রণালয়ের সচিব আকরাম আল হোসেন। এরই মধ্য দিয়ে স্কুল ফিডিং কর্মসূচির আওতায় স্কুল মিল কার্যক্রম উদ্বোধন করেন তারা।

এ সময় সচিব আকরাম আল হোসেন বলেন, রৌমারী-১১৬টি বিদ্যালয়ের মধ্যে-৪০টি, রাজিবপুর উপজেলার ৫৮টি বিদ্যালয়ের মধ্যে ২৫টি বিদ্যালয়ে মঙ্গলবার চালু হলো এই কার্যক্রম। শিগগির বাকি স্কুলগুলোতেও তা শুরু হবে। সারাদেশের আরও ১৬টি উপজেলায় একইরকম খাবার বিতরন শুরু হবে।

তিনি বলেন, “প্রতিদিন প্রতিটি শিশুকে খাবার দেওয়া হবে। তিনদিন সবজি-খিচুড়ি, বাকি তিনদিন ডিম-খিচুড়ি। আমরা চাই, শিশুদের আর যেন ক্ষুধা নিয়ে ক্লাস করতে না হয়। ২০২৩ সালের মধ্যে আমরা সব বিদ্যালয়ে মিডডে মিল চালু করব।”


কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভীন বলেন, শিশুদের মাঝে রান্না করা খাবার বিতরণের মতো মহতি এই কাজ আজ রৌমারী থেকে শুরু হলো।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন বলেন, শিশুদের আর বিস্কুট নয়, খাবার দেওয়া হবে। ২০২০-২০২১ অর্থবছর হতে পর্যায়ক্রমে দেশের সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের স্কুল ফিডিং প্রকল্পের আওতায় আনয়নের লক্ষ্যে ডিপিপি প্রণয়নের কার্যক্রম শেষ পর্যায়ে আছে।


দেশের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ঝরে পড়া রোধ, ক্লাসে ধরে রাখা এবং শিক্ষার মান বাড়াতে সব শিক্ষার্থীকে দুপুরের খাবার দেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে বলে তিনি জানান।


শিশুদের জন্য যুগান্তকারী এ সিদ্ধান্ত নেওয়ায় তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানান।প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠকে জাতীয় স্কুল মিল নীতিমালা ২০১৯-এর খড়ার অনুমোদন দেওয়া হয়েছে বলেও তিনি জানান।আজকের কর্মসুচীর মাধ্যমে প্রায় ১৫হাজার শিক্ষার্থী এ কার্যক্রমের আওতায় আসবে।

উক্ত অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন, মো:সোহেল আহম্মেদ মহাপরিচালক, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা অধিদপ্তর, রুহুল আমিন খান অতিরিক্ত সচিব (প্রকল্প পরিচালক),বদরুল হাসান বাবুল,অতিরিক্ত সচিব (উন্নয়ন)প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রনালয়, খন্দকার মো:ইকবাল হোসেন-ডিডি রংপুর,ডিপিইও শহীদুল ইসলাম,বে-সরকারী সংস্হা আরডিআরএস-এর প্রোগ্রাম পরিচালক হুমায়ন খালিদ,ওয়াল্ড ফুট প্রোগ্রাম এর-বিথীকা বিশ্বাস,সহকারী পু্লিশ সুপার মাহফুজুর রহমান,রৌমারী উপজেলা চেয়ারম্যান শেখ আব্দুল্লাহ্, রাজিবপুর উপজেলা চেয়ারম্যান আকবর হোসেন হিরো,রৌমারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো:আল ইমরান,রাজিবপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো:মেহেদী হাসান,রাজিবপুর উপজেলা আ’লীগ সভাপতি ও বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাই,সাবেক রৌমারী মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা আ:কাদের,রৌমারী উপজেলা আ’লীগ সাধারন সম্পাদক রেজাউল ইসলাম মিনুপ্রমুখ।অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভীন।সঞ্চালনা করেন রৌমারী উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাহমুদা আক্তার স্মৃতি,ও উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা নাজমুল করিম।

 

 

কিউএনবি/রেশমা/১৪ই জানুয়ারি, ২০২০ ইং/রাত ১০:১২

↓↓↓ফেসবুক শেয়ার করুন