১০ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং | ২৬শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ভোর ৫:৫৪

ওয়াসার পানি সুপেয় এমন দাবি অসত্য: বিশেষজ্ঞ কমিটি

 

ডেস্ক নিউজ : রাজধানীতে সরবরাহ করা ওয়াসার পানি সুপেয় সংস্থাটির এমন দাবি অসত্য। ওয়াসার পানিতে মিলেছে ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া ও মলের জীবাণু।সোমবার হাইকোর্টে দেয়া বিশেষজ্ঞ কমিটির প্রতিবেদনে এমন তথ্য বেরিয়ে এসেছে। সুপেয় পানি নিশ্চিতে ওয়াসা ও দুই সিটি কর্পোরেশনকে সমন্বিতভাবে কাজ করার সুপারিশ করেছে বিশেষজ্ঞ কমিটি। 

ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল নুর উস সাদিক প্রতিবেদনের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।তিনি জানান, প্রতিবেদনটি আগামী ৫ ডিসেম্বর আদালতে উপস্থাপন করা হবে।

রাজধানীবাসীর জন্য সুপেয় পানির একমাত্র জোগানদাতা ওয়াসা। প্রতিষ্ঠানটির দাবি, তাদের সরবরাহ করা পানি সুপেয়। কিন্তু গত জুলাইয়ে হাইকোর্টের নির্দেশে গঠিত কমিটি জানায়, তাদের সরবরাহ করা পানিতে মিলেছে ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া ও মলের জীবাণু। কিন্তু তা মানতে চায়নি ওয়াসা।

এমন বাস্তবতায় আরেকটি বিশেষজ্ঞ কমিটিকে পানি পরীক্ষায় দায়িত্ব দেন হাইকোর্ট। সেই প্রতিবেদন বলছে, ওয়াসার দাবি ঠিক নয়। একাধিক জায়গা থেকে পানির নমুনা জোগাড় করে পরীক্ষা করে এই কমিটি। যাতে ক্ষতিকর ই-কোলাই ও ব্যাকটেরিয়া পাওয়ার সত্যতা মিলেছে।

ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল নুর উস সাদিক জানান, বিশেষজ্ঞ কমিটি তাদের প্রতিবেদনে চারটি মন্তব্য তুলে ধরে। যাতে বলা হয়েছে, ওয়াসা ও দুই সিটি কর্পোরেশন সমন্বিতভাবে কাজ করলে, ওয়াসার লাইন ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে ব্যাকটেরিয়া কিংবা জীবাণু ঢুকতো না। সুপেয় পানির জন্য তৃতীয় পক্ষকে দিয়ে নজরদারি করা, সচেতনতামূলক কার্যক্রম চালানো ও বাসাবাড়ির রিজার্ভ ট্যাংক নিয়মিত পরিষ্কার রাখার সুপারিশও করা হয় প্রতিবেদনে। সেইসঙ্গে তাগিদ দেন সব ধরনের অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার।

রিটকারী আইনজীবী তানভীর আহমেদ বলছেন, তারা চান সারাবছর যেন এ মামলাটি মনিটরিং করা হয়। চলতি সপ্তাহেই বিশেষজ্ঞ কমিটির এ প্রতিবেদনের ওপর শুনানি হওয়ার কথা রয়েছে।

কিউএনবি/রেশমা/৩রা ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং/রাত ১২:৪১

↓↓↓ফেসবুক শেয়ার করুন