৮ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং | ২৪শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | রাত ২:০৬

শেখ হাসিনাকে কটাক্ষ করলে জনগণ ক্ষমা করবে না : কাদের

ফাইল ছবি

 

ডেস্কনিউজঃ ‘নূর হোসেন হত্যাকাণ্ড যে গণতন্ত্রের সংগ্রামকেই হত্যা করার জন্য- তা দেশ ও জাতি জানে। অথচ এই শহীদের প্রতিও আজ বিরূপ মন্তব্য করা হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বদৌলতে যারা রাজনীতিতে অক্সিজেন পেয়েছেন, তারা নেত্রীকেই কটাক্ষ করেন। কিন্তু তাকে কটাক্ষ করলে জনগণ কাউকে ক্ষমা করবে না।’

মঙ্গলবার রাজধানীর খামারবাড়ির কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে স্বেচ্ছাসেবক লীগ ঢাকা মহানগর উত্তরের সম্মেলনে ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন। প্রধান অতিথি হিসেবে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

মসিউর রহমান রাঙ্গাঁর নাম উচ্চারণ না করে ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, ‘কথা মুখ থেকে ফসকে গেলে মুখে আর ফিরে আসে না। যতই ‘সরি’ বলা হোক, যত অ্যাপোলাইজ করা হোক- এ ধরনের দায়িত্বহীন মন্তব্য ও কটাক্ষ দেশের রাজনৈতিক পরিবেশকে নষ্ট করে দেয়।’

সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘এখনও বলা হয় ‘মুজিব গেছে যেই পথে, হাসিনা যাবে সেই পথে’। বিএনপি এখনও এ রকম ঔদ্ধত্যপূর্ণ বক্তব্য দিয়ে যাচ্ছে। ১৫ আগস্টের খুনের দায় বিএনপি কোনোভাবেই এড়াতে পারে না।’ নেতাকর্মীদের প্রতি শুদ্ধি অভিযানের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে চলার আহ্বান জানান তিনি।

মঙ্গলবার সম্মেলন হলেও ১৬ নভেম্বর সংগঠনের জাতীয় সম্মেলনের দিন মহানগর উত্তরের নতুন নেতৃত্বের নাম ঘোষণা করা হবে বলে জানান ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে যত নামই আসুক না কেন, সমঝোতার মাধ্যমে একজন করে নাম দিতে হবে। না হলে প্রধানমন্ত্রী যে সিদ্ধান্ত দেবেন, সেটাই মেনে নিতে হবে।

মহানগর উত্তর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মোবাশ্বের চৌধুরীর সভাপতিত্বে সম্মেলনের উদ্বোধনী অধিবেশনে আরও বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, স্বেচ্ছাসেবক লীগের জাতীয় সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক নির্মল রঞ্জন গুহ, সদস্য সচিব গাজী মেজবাউল হোসেন সাচ্চু, সহসভাপতি মতিউর রহমান মতি, নগর উত্তরের সাধারণ সম্পাদক ফরিদুর রহমান খান ইরান প্রমুখ।

দুই প্রার্থীর সমর্থকদের চেয়ার ছোড়াছুড়ি :উদ্বোধনের আগে সম্মেলনস্থলে মহানগর উত্তর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক ফরিদুর রহমান খান ইরান ও মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ইসহাক মিয়ার সমর্থকদের মধ্যে চেয়ার ছোঁড়াছুঁড়ির ঘটনা ঘটে। তারা দু’জনেই নগর উত্তর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি পদপ্রার্থী।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন চত্বরে সম্মেলনস্থলে বসার জায়গাকে কেন্দ্র করে ইরান ও ইসহাকের সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। এক পর্যায়ে ইসহাক সমর্থকরা সম্মেলনস্থল ছেড়ে পাশে অবস্থান নেন। পরে অবশ্য সংগঠনের জ্যেষ্ঠ নেতাদের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি শান্ত হয়।

এর আগে দুপুর ১২টায় আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সম্মেলন উদ্বোধন করেন।

 

বিপুল/১২ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং/সন্ধ্যা ৭:৪৪

↓↓↓ফেসবুক শেয়ার করুন