৮ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং | ২৪শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | রাত ১:০২

স্ত্রীকে খুন করে স্বামীর আত্মহত্যা

 

ডেস্ক নিউজ : রংপুরের পীরগাছায় স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা করে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে স্বামী। সোমবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার চৌধুরাণী বাজারস্থ ব্র্যাকের শাখা অফিসে এ ঘটনা ঘটে।  খুন হওয়া তাসলিমা আক্তার রুনি (২৫) একজন এনজিও কর্মী। তিনি উপজেলার কৈকুড়ী ইউনিয়নের সুবিদ গ্রামের তোজাম্মেল হকের মেয়ে ও ব্র্যাকের চৌধুরাণী শাখার হিসাব রক্ষক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করা আব্দুল্লাহ আল মাসুদ স্বপন গাইবান্ধা সদর উপজেলার বল্লমঝাড় ইউনিয়নের রঘুনাথ গ্রামের শামছুল আলম মাস্টারের ছেলে বলে জানা যায়।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, তাসলিমা আক্তার লুনির সঙ্গে আব্দুল্লাহ আল মাসুদ স্বপনের চার বছর আগে বিয়ে হয়। তাদের দুজনেরই এটি দ্বিতীয় বিয়ে। বিয়ের পর প্রায় তিন বছর মাসুদ প্রবাসে থাকাকালীন আয়ের অর্থ স্ত্রী রুনির একাউন্টে পাঠান। পরে গত চার মাস আগে স্বপন বাড়িতে ফিরে আসলে ওই অর্থসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে দুইজনের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হয়। এরই জের ধরে স্বপন সোমবার সকালে রুনির কর্মস্থল ব্র্যাক অফিসে উপস্থিত হন। এসময় ওই অফিসের অন্যান্য কর্মীরা মাঠে ছিলেন।  

এ সুযোগে ফাঁকা অফিসে রুনির উপর চাইনিজ কুড়াল দিয়ে অতর্কিত হামলা চালান স্বপন। এতে রুনির মৃত্যু নিশ্চিত ভেবে স্বপন ওই অফিসে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন। পরে সকাল সাড়ে ১১টার দিকে এক সহকর্মী অফিসে ফিরে বিষয়টি দেখতে পেয়ে চিৎকার শুরু করেন। তার চিৎকারে লোকজন ছুটে এসে রুনিকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠালে পথিমধ্যেই তার মৃত্যু হয়। তবে স্থানীয়রা বলছেন, ঘটনাস্থলেই রুনির মৃত্যু হয়েছে।  পীরগাছা থানার ওসি রেজাউল করিম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, স্বপনের লাশের সুরতহাল রিপোর্ট করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। রুনির লাশ একই হাসপাতালে আগেই নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তাদের মরদেহ ময়নাতদন্ত করা হবে।

 

 

কিউএনবি/আয়শা/১১ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং /রাত ১০:১৯

↓↓↓ফেসবুক শেয়ার করুন