১০ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং | ২৬শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | রাত ১০:০০

ঝিকরগাছায় বীর মুক্তিযোদ্ধা সাংবাদিক নজরুল ইসলাম বাবুলের একাল-সেকাল

 

মোঃ তরিকুল ইসলাম,ঝিকরগাছা, যশোর : যশোরের ঝিকরগাছা পৌরসদরের কাউরিয়া গ্রামের বাসিন্দা বীর মুক্তিযোদ্দা সাংবাদিক নজরুল ইসলাম বাবুলের একাল-সেকাল। পিতার নাম মৃত-বাবর আলী, মাতা নবিছন নেছা। জন্ম-২২ নভেম্বর ১৯৫৫ ইং। অল্প শিক্ষিত নজরুল ইসলাম বাবুলের ছোটবেলা থেকে শখ ছিল সাংবাদিকতা করার। বাঁকড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে তিনি ৫ম শ্রেণী পাশ করেন।

ছোটবেলা থেকে তিনি লেখাপড়ার পাশাপাশি বিভিন্ন কবিতা, গল্প ও সাহিত্য লেখালেখি শুরু করেন। ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে সক্রিয় অংশ গ্রহণ করলেও এতদিনে গ্রেজেটভুক্ত হতে পারেনিন তিনি। মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের পর ১৯৭৩/৭৪ সালে যশোরে মুক্তিযুদ্ধা ইউনিট ক্যাম্প তৈরী করেছিলেন তিনি। সর্বশেষ হালনাগাত মুক্তিযোদ্ধা তালিকাভুক্তিতে যশোরের ঝিকরগাছার ৩৫ নং সিরিয়ালে তার নাম অন্তভূক্তি হয়েছে। যার ডি.জি নং-ডি.জি.আই ১৭৬৭৯৯। এর পর ১৯৭৫ সালে পিতার মৃত্যূর পর অভাব-অনাটনের সংসারের হাল ধরতে হয় এই সাংবাদিকের। কর্মজীবনের শুরুতে নজরুল ইসলাম বাবুল সাংবাদিকতায় নাম লেখায়।

১৯৭৯ সালে তিনি সপ্তাহিক নতুন বাংলা পত্রিকার ঝিকরগাছা প্রতিনিধি হিসেবে সাংবাদিকতা শুরু করেন। এরপর ঢাকা থেকে প্রকাশিত দৈনিক আল আমিন পত্রিকায় লেখালেখি করতেন তিনি। ১৯৯৫ সালে তিনি বাংলাবাজার পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ শুরু করেন। এরপর খুলনার দৈনিক অর্নিবান, ঢাকার দৈনিক শ্যামবাজার পত্রিকায় কাজ করেছেন। বর্তমানে নজরুল ইসলাম বাবুল ঢাকা থেকে প্রকাশিত দৈনিক আমাদের কণ্ঠ পত্রিকার সিনিয়র স্টাফ রির্পোটার হিসেবে সততা ও নিষ্টার সাথে দায়িত্ব পালন করছেন।

এছাড়া নজরুল ইসলাম বাবুল ঝিকরগাছা প্রেসক্লাবের কয়েকবার আহবায়কসহ ৪ বার সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন। বর্তমান তিনি ঝিকরগাছা প্রেসক্লাবের কার্যকরী কমিটির সদস্য হিসেবে সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করছেন। তার জীবনে কোন লোভ, হিংসা, অহংকার কখনো ছিলনা এখনো নেই। বর্তমানে তিনি পৈত্রিক সুত্রে তিনি ভিটেবাড়ির ১০ শতক জমি ছাড়া কিছুই পাননি। বর্তমানে মা নবিছন নেছা, স্ত্রী হাসনা ভানু, ২ ছেলে আসলাম আলী সেন্টু, জাহিদ হাসান তুশার, ২ কন্যা ফারজানা সখি ও জুলিয়া খাতুন নিয়ে কোনমতে সংসার চলে।

 

 

কিউএনবি/রেশমা/১০ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং/বিকাল ৩:১০

↓↓↓ফেসবুক শেয়ার করুন