১৯শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং | ৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | বিকাল ৩:৫৫

ঠাকুরগাঁওয়ে ফেন্সিডিল ও গাঁজাসহ দুই নারী আটক

 

মোঃ জাহিদ হাসান মিলু, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি : ঠাকুরগাঁওয়ের জেলা প্রশাসক ড. কে এম কামরুজ্জামান সেলিম এর নির্দেশে ঠাকুরগাঁও মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর ও ভ্রাম্যমান আদালত আড়াই ঘন্টা অভিযান চালিয়ে ১৬৯ বোতল ফেন্সিডিল ও প্রায় ৩ শত ৩০ গ্রাম গাঁজাসহ দুই নারীকে আটক করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।

সোমবার (১৪ অক্টোবর) দুপুরে ঠাকুরগাঁওয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল কাইয়ুমের নেতৃত্বে সদর উপজেলার উত্তর হরিহরপুর গ্রামে অভিযান চালিয়ে দুই জন নারীকে আটক করে কারাগারে প্রেরণ করে।আটককৃতরা হলেন, ঠাকুরগাঁও রোডের মাদক ব্যবসায়ী মনুর দ্বিতীয় স্ত্রী হামিদা (৪৬) ও খলিলের স্ত্রী শাহাজাদী (৩০)।
এদের মধ্যে শাহাজাদী বাড়ি থেকে প্রায় ৮০ গ্রাম গাঁজা উদ্ধার করা হয়। ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল কাইয়ুম শাহাজাদীকে বিনাশ্রম ৬ মাসের কারাদন্ড, ১০ হাজার টাকা অর্থদন্ড ও অনাদায়ে আরও ১ মাসের কারা দন্ড প্রদান করে।

এদিকে ওই গ্রামেই পৃথক অভিযান চালিয়ে হামিদার বাড়ির শোবার খাটের নিচে গর্ত থেকে ১৬৯ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়। হামিদার বিরুদ্ধে সদর থানায় নিয়মিত মামলা থাকায় তাকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে বলে জানান ঠাকুরগাঁও মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পরিদর্শক শফিকুল ইসলাম।

অন্যদিকে ওই গ্রামের জালাল (৪৫) এর বাড়ি থেকে ২৫০ গ্রাম গাঁজা ও গাঁজাবিক্রিত ৩৫ হাজার ৭ শত ৯০ টাকা উদ্ধার করা হয়।এছাড়াও মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে নিয়মিত মামলার দুই জন আসামী এখনো পলাতক আছে।আসামীরা হলো মৃত ওলামিয়ার ছেলে মনু ও উৎলব আলীর ছেলে জালাল।

ঠাকুরগাঁও মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পরিদর্শক শফিকুল ইসলাম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ও এলাকাবাসীদের সহযোগিতায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক ও মাদক দ্রব্য উদ্ধার করি। এই অভিযান আমাদের অব্যাহত আছে ও থাকবে।এ বিষয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল কাইয়ুম জানান, ঠাকুরগাঁওয়ের সুযোগ্য জেলা প্রশাসক ড. কে এম কামারুজ্জামান সেলিম স্যার এর নির্দেশে আমরা এই অভিযানটি পরিচালনা করি এবং এলাকাবাসীর সহযোগিতায় আমরা মাদক দ্রব্য উদ্ধার করে মাদক ব্যবসায়ীদের আটক করতে স্বক্ষম হয়েছি। তাই আমি ওই এলাকাবাসীকে ধন্যবাদ জানাই।

তিনি আরও বলেন, উত্তর হরিহরপুর গ্রামের মানুষ গুলো মাদকের বিরুদ্ধে সচেতন হয়েছে এমন প্রতিটি গ্রামের মানুষকে মাদকের বিরুদ্ধে সচেতন হতে হবে। তাই আমি সকলকে মাদকের বিরুদ্ধে সচেতন হওয়ার আহান জানাচ্ছি।অভিযানে আরও ছিলেন, ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের পেশকার সাইফুল ইসলাম, সদর থানার এস আই শাকিলাসহ পুলিশ ও আনসার স্থানীয় ইউপি সদস্যগণ এবং গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

 

 

কিউএনবি/রেশমা/১৪ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং/রাত ১০:২২

শেয়ার করুন..