১৭ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৩রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ৯:১৪

৫ম শ্রেনীর স্কুলছাত্রীকে বাল্য বিবাহের হাত থেকে রক্ষা করলেন সাংসদ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, তানভীর সোহেল: সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার খোকশাবাড়ি ইউনিয়নে লাকি খাতুন নামের ৫ম শ্রেনীর এক স্কুলছাত্রীকে বাল্য বিবাহের হাত থেকে রক্ষা করলেন সিরাজগঞ্জ-২ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব অধ্যাপক ডাঃ মোঃ হাবিবে মিল্লাত মুন্না এমপি।

বুধবার বিকেলে সদর উপজেলার খোকশাবাড়ি ইউনিয়নের বানিয়াগাতি গ্রামে এই বাল্যবিবাহ প্রতিরোধের ঘটনাটি ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয়সূত্র জানায়, সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার খোকশাবাড়ি ইউনিয়নের বানিয়াগাতি গ্রামের লালচান সেখের মেয়ে, বানিয়াগাতি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেনীর ছাত্রী লাকি খাতুনের সাথে একই উপজেলার বাগবাটি ইউনিয়নের ধলডোব গ্রামের আব্দুল ওয়াদুদ নামের এক যুবকের বিয়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছিল। এদিন দুপুরে প্রায় ৪০ জন বরযাত্রি বড়সহ মেয়ের বাড়িতে উপস্থিত হয়ে খাবার খাওয়া শেষ করে বিয়ের প্রস্তুতি নিতে থাকে।এমন সময়ে এই বাল্যবিবাহের খবর পেয়ে বিয়ে বাড়িতে উপস্থিত হন বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে সারাদেশে জনসচেতনতামূলক কাজে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ কতৃক দায়িত্ব প্রাপ্ত সংসদ সদস্য আলহাজ্ব অধ্যাপক ডাঃ মোঃ হাবিবে মিল্লাত মুন্না এম.পি।

সংসদ সদস্যর উপস্থিতি টের পেয়ে মেয়ের বাবা-মাসহ বড় যাত্রিরা পালিয়ে যায়। সাংসদ ঐ স্কুলছাত্রির সাথে কথা বলেন। এই সময় মেয়েটি বিয়েতে নিজের অসম্মতির কথা উল্লেখ করে আরো লেখাপড়া করার আগ্রহের কথা জানালে তাৎক্ষনিকভাবে বিয়েটি বন্ধ করার নির্দেশ দেন তিনি। সাংসদ এর নির্দেশে পুলিশ ও স্থানীয়রা বাল্যবিবাহটি বন্ধ করে দেন।

এই সময় সাংসদ অধ্যাপক ডাঃ হাবিবে মিল্লাত মুন্নার সাথে আরো উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা চেয়ারম্যান রিয়াজ উদ্দিন, জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি মোস্তফা কামাল খান ও সিরাজগঞ্জ প্রেসকাবের সভাপতি ও পৌরসভার প্যানেল মেয়র হেলাল উদ্দিন।

এই ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সিরাজগঞ্জ-২ (সদর-কামারখন্দ) আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব অধ্যাপক ডাঃ মোঃ হাবিবে মিল্লাত মুন্না এমপি বলেন, বাল্যবিবাহ একটি সামাজিক ব্যাধি। এই ব্যাধিটি থেকে সমাজকে মুক্ত করতে সমাজের সকলকেই ভূমিকা রাখতে হবে।

তিনি আরো বলেন, অনেক জনপ্রতিনিধি আছে যারা ভোটের ভয়ে বাল্যবিবাহসহ বিভিন্ন অসামাজিক কাজে বাধা প্রদান থেকে বিরত থাকেন। কিন্তু বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকার নারীর ক্ষমতায়ন নিশ্চিতে সকল ব্যবস্থা গ্রহন করছে। আমরা জনগনের সেবক হিসেবে জনগনের পাশে আছি, থাকব। জনগনের জন্য ভালো করার ফলে কেউ যদি আমার প্রতি রুষ্ট হয়, এতে আমি ভয় পাই না, কারন আমি জনগনের মঙ্গলের জন্যই কাজ করছি।

কুইকনিউজবিডি.কম/নহ/২৪.০৮.২০১৬/০৯:০০