ব্রেকিং নিউজ
২৫শে আগস্ট, ২০১৯ ইং | ১০ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | রাত ৯:৩৯

সাবেক তথ্যমন্ত্রী মিজানূর রহমান শেলীর মৃত্যুতে ফখরুলের শোক

 

ডেস্ক নিউজ : প্রয়াত রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ সরকারের মন্ত্রী, রাজনীতি ও রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিষয়ক লেখক মিজানূর রহমান শেলীর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।  সোমবার রাতে গণমাধ্যমে পাঠানো এক শোকবাণীতে তিনি বলেন, মিজানূর রহমান শেলীর মৃত্যুতে তার পরিবার-পরিজনদের ন্যায় আমিও সমব্যথী। একজন গুণী, সুশিক্ষিত, সংস্কৃতবান ও রুচিশীল মানুষ হিসেবে তিনি সর্বমহলে সমাদৃত ছিলেন। তিনি ছিলেন রাজনৈতিক বিশ্লেষক এবং সমাজবিজ্ঞান ও রাষ্ট্রবিজ্ঞান নিয়ে গবেষণার পাশাপাশি সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গেও জড়িত ছিলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী মিজানূর রহমান শেলী সাহিত্যের নানা বিষয়ের চর্চা করতেন। তিনি ছিলেন একজন খাঁটি দেশপ্রেমিক ও আলোকিত মানুষ। একজন সুলেখক হিসেবেও তিনি খ্যাতিমান ছিলেন। স্বদেশ ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে নিবিড়ভাবে যুক্ত থেকে তিনি যেসব পেশার সঙ্গে কাজ করেছেন সেসবের প্রত্যেকটিতে দক্ষতা ও প্রজ্ঞার স্বাক্ষর রেখেছেন।  শোকবাণীতে বিএনপি মহাসচিব আরও বলেন, মিজানূর রহমান শেলী সমাজসেবার নানা কাজের সঙ্গেও যুক্ত ছিলেন। সর্বোপরি তিনি ছিলেন অত্যন্ত উদার, সজ্জন ও বিনয়ী স্বভাবের মানুষ। তার মতো একজন বরেণ্য শিক্ষাবিদের মৃত্যু দেশের জন্য বড় ধরনের ক্ষতি।

‌‘আমি মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি এবং শোকার্ত পরিবারবর্গ, গুণগ্রাহী ও শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি জানাচ্ছি গভীর সমবেদনা।’‌‌ প্রসঙ্গত সোমবার ঈদের দিনের দুপুরে ঢাকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিসাধীন অবস্থায় মারা যান মিজানূর রহমান শেলী।  গতমাসে স্ট্রোক করেছিলেন তিনি। এছাড়া দীর্ঘদিন ধরে কিডনি জটিলতায় ভুগছিলেন মিজানূর রহমান শেলী।

২০১৬ সালে তার স্ত্রী সুফিয়া রহমান মারা যান।  মিজানূর রহমান শেলী আর্থিক প্রতিষ্ঠান প্রিমিয়ার লিজিং অ্যান্ড ফাইনান্সের চেয়ারম্যান ছিলেন।  বেসরকারি গবেষণা ও প্রকাশনা সংস্থা সেন্টার ফর ডেভেলপমেন্ট রিসার্চ, বাংলাদেশের (সিডিআরবি) প্রধান ছিলেন তিনি।  এরশাদ সরকারের তথ্য ও পানিসম্পদ মন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।

 

 

কিউএনবি/আয়শা/১৩ই আগস্ট, ২০১৯ ইং/বিকাল ৩:৫৮