১৮ই আগস্ট, ২০১৯ ইং | ৩রা ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | সকাল ৮:৫০

মেয়েকে নোংরা কথা, দ্বিতীয় স্বামীর বিরুদ্ধে থানায় অভিনেত্রী

 

বিনোদন ডেস্ক : স্বামী অভিনব কোহলির বিরুদ্ধে থানায় গুরুতর অভিযোগ দায়ের করলেন ভারতের ছোটপর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী শ্বেতা তিওয়ারি। মাতাল অবস্থায় ঘরে ফিরে অভিনব তাঁর সৎমেয়ে পলককে মারধর করেছেন। মেয়েকে নোংরা কথা বলারও অভিযোগ শ্বেতার। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জি নিউজ প্রতিবেদনে জানিয়েছে, মুম্বাইয়ের কান্দিভালি পুলিশ স্টেশনে হাজির হয়ে অভিনব কোহলির বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন শ্বেতা তিওয়ারি। ওই সময় থানায় তাঁর সঙ্গে ছিলেন মেয়ে পলকও।

খবরে প্রকাশ, থানায় হাজির হয়ে শ্বেতা চিৎকার করে কান্না শুরু করেন। পরে অভিযোগ করেন, অভিনব নাকি মাতাল অবস্থায় ঘরে ফিরে মেয়ে পলককে মারধর করেছেন। অকথ্য ভাষায় গালিগালাজও করেছেন।  শ্বেতার আরো অভিযাগ, ২০১৭ সাল থেকে অভিনব নাকি শ্বেতার প্রথম পক্ষের মেয়ে পলককে বিভিন্ন অশ্লীল ছবি দেখাতে শুরু করেন।  এদিকে, শ্বেতার সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন দ্বিতীয় স্বামী অভিনব কোহলি। তবে মাতাল অবস্থায় পলককে থাপ্পড় মেরেছেন বলে স্বীকার করেছেন।

খবরে প্রকাশ, শ্বেতার অভিযোগের ভিত্তিতে এরই মধ্যে অভিনবকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে পুলিশ। তাঁর বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৫৪-এর এ, ৩২৩, ৫০৪, ৫০৬, ৫০৯ ও ৩৪২-এর ১৯ ধারায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।  প্রথম স্বামী রাজা চৌধুরীর সঙ্গে বিচ্ছেদের পর ২০১৩ সালে অভিনব কোহলির সঙ্গে সাতপাকে বাঁধা পড়েন ‘কৌসুতি জিন্দেগি কি’ অভিনেত্রী শ্বেতা তিওয়ারি। তাঁদের ঘরে রয়েছে এক পুত্রসন্তান।  ভোজপুরি অভিনেতা রাজা চৌধুরীর সঙ্গে বিয়ের পর কন্যাসন্তান পলকের মা হন শ্বেতা তিওয়ারি। পরে শ্বেতার সঙ্গে রাজার মনোমালিন্য শুরু হয়। রাজা শ্বেতাকে প্রকাশ্যে মারধরও করতেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

 

 

কিউএনবি/আয়শা/১২ই আগস্ট, ২০১৯ ইং/বিকাল ৪:০৫