ব্রেকিং নিউজ
২৫শে আগস্ট, ২০১৯ ইং | ১০ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | রাত ১০:০৭

মনিরামপুরে জমি নিয়ে বিরোধে ছোট ভাইয়ের হাতে বড় ভাই খুন

 

মনিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি : যশোরের মনিরামপুরে জমি নিয়ে পূর্ব বিরোধের জের হিসেবে ছোট ভাই ধারালো হাসুয়া দিয়ে উপর্যপুরি কুপিয়ে নৃসংশভাবে বড় ভাই মকবুল হোসেন গাজীকে খুন করেছে।আর এ ঘটনা ঘটেছে বৃহস্পতিবার সকাল নয়টার দিকে সদর ইউনিয়নের দেবিদাসপুর গ্রামে। নিহত মকবুল হোসেন গাজী ওই গ্রামের মৃত মকছেদ গাজীর বড় ছেলে। খবর পেয়ে সহকারী পুলিশ সুপার রাকিব হাসান এবং ওসি রফিকুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধারের পর ময়না তদন্তের জন্য যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালের মর্গে প্রেরন করে। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। তবে ঘাতক ছোট ভাই মফুজার হোসেনকে পুলিশ এখনও আটক করতে পারেনি।

থানার এসআই তপন কুমার সিংহ এবং সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নিস্তার ফারুক জানান, দেবিদাসপুর গ্রামের মৃত মোকছেদ আলী গাজীর দুই ছেলে মকবুল হোসেন এবং মফুজার হোসেনের মধ্যে পৈত্রিক সম্পত্তি নিয়ে বিগত ১০ বছর ধরে বিবাদ চলে আসছে। ইতিমধ্যে চেয়ারম্যান নিস্তার ফারুক বেশ কয়েকবার স্থানীয়ভাবে সালিশ বৈঠক করেও ছোটভাই মফুজারের একগুয়েমির কারনে সমাধান করতে পারেননি। নিহত মকবুল হোসেনের স্ত্রী কোহিনুর বেগম জানান, জমি নিয়ে বিরোধকে কেন্দ্র করে মফুজার প্রায়ই তার স্বামীকে দা দিয়ে কুপিয়ে হত্যার হুমকি দিত। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বৃহস্পতিবার সকাল নয়টার দিকে বাড়ির সামনে নিজের সারের দোকানে বসে ছিলেন মকবুল হোসেন। এ সময় ছোটভাই মফুজার হোসেন বাড়ি থেকে ধারালো হাসুয়া নিয়ে দোকনে গিয়ে মকবুল হোসেনকে উপুর্যপরি কুপিয়ে পালিয়ে যায়। এ সময় স্থানীয়রা তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধারের পর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে জরুরী বিভাগের ডা: অনুপ কুমার বসু তাকে মৃত ঘোষনা করেন।

নিহত মকবুল গাজীর বৃদ্ধা মা নাছিরন বেগম জানান, তার ছোট ছেলে অত্যন্ত দূর্ধর্ষ প্রকৃতির। ইতিমধ্যে সে স্ত্রী নির্যাতন মামলায় দীর্ঘদিন জেল খেটে জামিনে মুক্তি পায়। এরপর থেকে বড় ভাইয়ের সম্পত্তি ফাকি দিতে মরিয়া হয়ে ওঠে। সর্বশেষ সম্পত্তির জন্য নিজের বড় ভাইকে সে খুন করল। মা নাছিরন বেগম এ ঘটনায় ঘাতক ছোট ছেলের কঠিন শাস্তি দাবি করেন। ওসি(সার্বিক) রফিকুল ইসলাম জানান,নিহতের লাশ উদ্ধারের পর ময়না তদন্তের জন্য যশোর ২৫০ শয্যা হাসাপাতালের মর্গে প্রেরন করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। তবে পুলিশ এখনও ঘাতককে আটক করতে পারেনি।

 

 

কিউএনবি/আয়শা/৮ই আগস্ট, ২০১৯ ইং/দুপুর ২:৫৮