ব্রেকিং নিউজ
২৫শে আগস্ট, ২০১৯ ইং | ১০ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | রাত ৯:৩৭

বদরগঞ্জে গৃহবধূকে আটকে রেখে তিনদিন ধরে ধর্ষণ

 

ডেস্ক নিউজ : রংপুরের বদরগঞ্জে নিজ বাড়ির সামনে থেকে এক গৃহবধূকে (২৯) অপহরণের পর আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে রেয়াজুল ইসলাম (৪৭) নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। অপহরণের তিনদিন পর পালিয়ে রক্ষা পেয়েছেন ওই গৃহবধূ। বর্তমানে তিনি রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। অভিযুক্ত ধর্ষক রেয়াজুল ইসলামকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।  মামলা সূত্রে জানা গেছে, ওই গৃহবধূ স্বামীসহ তার বাবার বাড়িতেই থাকেন। তাদের দুটি সন্তানও রয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে তার প্রতি কুদৃষ্টি পড়ে প্রতিবেশী অবেজ উদ্দিনের ছেলে রেয়াজুল ইসলামের। তিনি প্রায়ই ওই গৃহবধূকে উত্ত্যক্ত করতেন। ওই গৃহবধূ বিষয়টি স্বামীসহ পরিবারের অন্যদের জানালে রেয়াজুল ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন এবং তাকে অপহরণসহ প্রাণনাশের হুমকি দেন।

গত বুধবার রাতে ওই গৃহবধূ বাড়ির বাইরে বের হলে রেয়াজুল কৌশলে তাকে অপহরণ করে। পরে পৌর শহরের ডাক্তার পাড়ার আনারুল নামে এক ব্যক্তির বাড়িতে আটকে রেখে তিনদিন ধরে ধর্ষণ করে রেয়াজুল। তিনদিন পর ওই গৃহবধূ রবিবার কৌশলে পালিয়ে আসেন। বাড়িতে এসে অসুস্থ হয়ে পড়ায় পরিবারের লোকজন তাকে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। কিন্তু তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় চিকিৎসকরা তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন। বর্তমানে তিনি সেখানেই চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এ ঘটনায় ওই গৃহবধূর বাবা বদরগঞ্জ থানায় মামলা করেছেন। এতে রেয়াজুলের বিরুদ্ধে অপহরণসহ ধর্ষণের অভিযোগ আনা হয়েছে। এছাড়া পৌর শহরের ডাক্তার পাড়ার আনারুলের বিরুদ্ধেও একই অভিযোগ আনা হয়েছে। অভিযোগ পেয়ে পুলিশ ওইদিন রাতে মূলহোতা রেয়াজুলকে গ্রেফতার করে।  বদরগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) আরিফ আলী জানান, গ্রেফতার রেয়াজুলকে সোমবার আদালতের মাধ্যমে রংপুর জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া আনারুলকে ধরতে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

 

কিউএনবি/আয়শা/৬ই আগস্ট, ২০১৯ ইং/বিকাল ৫:৩৯