২১শে জুলাই, ২০১৯ ইং | ৬ই শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | রাত ২:৩৫

দুই কোরিয়াকে ‘এক করতে’ কিমের দেশে দ. কোরিয়ার সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ছেলে

 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : দুই কোরিয়াকে এক করার স্বপ্ন নিয়ে উত্তর কোরিয়ায় ফিরে গেলেন দক্ষিণ কোরিয়ার সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী চয় ডক-শিনের ছেলে চয় ইন-গুক। দক্ষিণ কোরিয়ার সরকারি সংবাদমাধ্যম কেসিএনএ এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, গত রবিবার পিয়ংইয়ং পৌঁছেছেন চয় ইন-গুক। ফলে নিজেদের প্রায় বিধ্বস্ত অর্থনীতি নিয়ে সঙ্কটে থাকা উত্তর কোরিয়া প্রচার করার সুযোগ পাবে যে, দক্ষিণ কোরিয়ার চেয়ে তাদের শাসন ব্যবস্থা ভালো। সে কারণেই ফিরে এসেছেন ৭২ বছর বয়সী ইন-গুক। 

এরই মধ্যে উত্তর কোরিয়ার সরকারি ওয়েবসাইটে ইন-গুকের একটি বিবৃতি প্রকাশ করা হয়েছে। তাতে তিনি জানিয়েছেন, বাবা-মায়ের শেষ ইচ্ছা পূরণ করতেই সে দেশে গেছেন তিনি। দুই কোরিয়াকে আবারো এক করার কাজেই বাকি দিনগুলো কাটাতে চান তিনি। এখানে কিম জং উনের নেতৃত্বে সেই কাজই চালিয়ে যাবেন।

দুই কোরিয়ায় ছড়িয়ে থাকা একই পরিবারের লোকজনদের নিজেদের মধ্যে ফোনে কথা বলতে, চিঠি পাঠাতে বা ই-মেইল করতে হলেও বিশেষ অনুমতি নিতে হয়। তবে উত্তর কোরিয়ায় যাওয়ার জন্য ইন-গুক কোনো অনুমতি নেননি বলে সিওলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। দক্ষিণ কোরিয়ার স‌ংবাদমাধ্যমের জল্পনা, উত্তর কোরিয়ার দেয়া ভিসা নিয়ে বেইজিং থেকে সে দেশে উড়ে গেছেন ইন-গুক। ১৯৫০ সাল থেকে ১৯৫৩ সাল পর্যন্ত চলা যুদ্ধের পর থেকে ৩০ হাজারেরও বেশি মানুষ উত্তর কোরিয়া থেকে দক্ষিণ কোরিয়ায় পালিয়ে আশ্রয় নিয়েছেন। 

মূলত, রাজনৈতিক দমন-পীড়ন ও দারিদ্রের কষাঘাত সহ্য করতে না পেরে তারা এ কাজ করেছেন। তবে দক্ষিণ কোরিয়া থেকে উত্তর কোরিয়ায় পাড়ি দেয়ার নজির তেমন একটা নেই। কেউ গেলেও কিমের দেশ তাদের ফেরত পাঠিয়ে দেয়। গত বছর এমন দু’জনকে ফেরত পাঠিয়ে দিয়েছিল উত্তর কোরিয়া। তবে ‘হাই-প্রোফাইল’ ইন-গুকের ব্যাপারটি আলাদা। মনে করা হচ্ছে তার ক্ষেত্রে এ ধরনের ঘটনা ঘটবে না। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, ইন-গুকের হাত ধরে দেশের ভাবমূর্তি খানিকটা উন্নতির চেষ্টা করবে উত্তর কোরিয়া।

 

 

কিউএনবি/আয়শা/১১ই জুলাই, ২০১৯ ইং/ বিকাল  ৫:০৭