২১শে জুলাই, ২০১৯ ইং | ৬ই শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | রাত ২:৪৪

ধর্ষণ, খুন ও দুর্নীতি বন্ধে ঢাবিতে বিক্ষোভ

 

ডেস্ক নিউজ : ধর্ষণ, খুন ও দুর্নীতি বন্ধ ও ধর্ষকদের শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ করেছে কোটা সংস্কার আন্দোলনের মাধ্যমে গড়ে ওঠা সংগঠন বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বুধবার এ বিক্ষোভ করেন তারা। বিক্ষোভে অংশ নিয়ে ডাকসু ভিপি নূরুল হক নূর বলেন, একদলীয় লেজুড়বৃত্তি রাজনীতির মাধ্যমে মূল্যবোধকে ধ্বংস করে দেয়া হচ্ছে। অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ পরবর্তী সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। ধর্ষণ, খুন ও দুর্নীতি বন্ধ ও ধর্ষকদের শাস্তির দাবিতে প্রতিবাদী কর্মসূচির আয়োজন করা হয়।

কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের সংগঠন বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ এ কর্মসূচির আয়োজন করে। সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলা থেকে বিক্ষোভ মিছিলটি শুরু হয়ে টিএসএসি, দোয়েল চত্বর, মৎস্য ভবন মোড়, হাইকোর্টে মোড়, কার্জন হল, কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে দিয়ে ফের অপরাজেয় বাংলায় এসে সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। এতে অন্যদের মধ্যে অংশ নেন ডাকসুর সমাজসেবা সম্পাদক আখতার হোসেন, পরিষদের আহ্বায়ক হাসান আল মামুন, যুগ্ম আহ্বায়ক রাশেদ খান, ফারুখ হোসেনসহ প্রায় দুই শতাধিক শিক্ষার্থী।

নূরুল হক নূর বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রাইমারি পর্যন্ত সব জায়গায় দলীয় এক লেজুড়বৃত্তির রাজনীতির মাধ্যমে মূল্যবোধ ধ্বংস করে দেয়া হচ্ছে। যখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা ভোট কারচুপির সঙ্গে জড়িত থাকে তখন অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের প্রতি আমাদের সেই শ্রদ্ধাবোধটুকু থাকে না। তখন শিক্ষকরা জাতির বিবেক নাকি জাতির চোর তখন সেটা আমাদের মধ্যে প্রশ্ন জাগে। সমাবেশে নূর বলেন, আজকে আমরা দেখতে পাচ্ছি ৯ মাসের শিশু থেকে ৯০ বছরের বৃদ্ধা ধর্ষণ থেকে রক্ষা পাচ্ছে না। একটি শিশু ও ফুলকে পবিত্রতার প্রতীক বলা হয়। কিন্তু এ পাষণ্ড চোরেরা ফুলের দিকে যৌনতার দৃষ্টিতে তাকায়।

ডাকসুর সমাজসেবা সম্পাদক আখতার হোসেন বলেন, বাংলাদেশের চিরাচরিত সমাজ ব্যবস্থা আজ ধ্বংসের মুখে পতিত হয়েছে। ছোট শিশুকে পর্যন্ত ধর্ষণ করা হচ্ছে। একের পর এক এরকম অনেক ঘটনা ঘটছে, কিন্তু এগুলোর কোনো বিচার হচ্ছে না।

 

 

কিউএনবি/আয়শা/১১ই জুলাই, ২০১৯ ইং/দুপুর ১:১৬