২২শে আগস্ট, ২০১৯ ইং | ৭ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | রাত ২:২০

নেত্রকোনায় মৎস্যজীবীকে গলা কেটে হত্যা, যুবক আটক

 

শান্তা ইসলাম, নেত্রকোনা প্রতিনিধি : নেত্রকোনা সদর উপজেলার চল্লিশা ইউনিয়নের সাকুয়া বাজার সংলগ্ন গন্ধবপুর গ্রামের মৎস্যজীবী বিষ্ণু চন্দ্র বর্মণকে (৬০) আজ মঙ্গলবার দুপুরে নিজ বসত ঘরের ভিতর ধারালো অস্ত্র দিয়ে গলা কেটে নৃশংসভাবে খুন করা হয়েছে। হত্যাকারী এ সময় বিষ্ণু চন্দ্র বর্মণের শরীর থেকে মাথা বিছিন্ন করে পেলে। ঘটনার পরপরই পুলিশ হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে নেত্রকোনা জেলা সমবায় অফিসার এম এ আহাদের ছেলে তাসকিনকে (৩০) তার বাড়ি থেকে আটক করেছে।

নেত্রকোনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোহাম্মদ ফখরুজ্জামান জুয়েল এলাকাবাসীর বরাত দিয়ে জানান, আজ মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বিষ্ণু চন্দ্র বর্মণ তার বসত ঘরে ঘুমাচ্ছিলেন। এ সময় একই এলাকার তাসকিন নামের এক যুবক বিষ্ণুর ঘরে ঢুকে ধারালো দা দিয়ে কুপিয়ে তাকে হত্যা করে। হত্যাকারী বিষ্ণু চন্দ্র বর্মণের শরীর থেকে মাথা বিছিন্ন করে পেলে পালিয়ে যায়। প্রতিবেশীরা তাসকিনকে বিষ্ণুর ঘর থেকে রক্তমাখা শরীর নিয়ে বের হতে দেখে ডাক চিৎকার করলে প্রতিবেশীরা বিষ্ণুর ঘরে এসে দেখে তার নিথর দেহ বিচানায় পড়ে রয়েছে। স্থানীয় লোকজন বিষয়টি নেত্রকোনা মডেল থানার পুলিশকে জানায়। খবর পেয়ে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছে তাসকিনের বাড়ি ঘেরাও করে তাকে আটক করে। হত্যাকান্ডের কারন জানা যায়নি।

নেত্রকোনা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. তাজুল ইসলাম জানান, লাশের সুরত হাল রিপোর্ট তৈরী করে ময়না তদন্তের জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ঘাতক তাসকিনকে আটক করা হয়েছে। কি কারণে এই নৃশংস হত্যাকান্ড ঘটানো হয়েছে, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

 

কিউএনবি/আয়শা/১১ই জুন, ২০১৯ ইং/সন্ধ্যা ৭:৫৪