১৮ই জুলাই, ২০১৯ ইং | ৩রা শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | দুপুর ১:৪৩

আজব ৪ জায়গা

 

ডেস্ক নিউজ :হাজারও আজব ভয়ংকর জায়গা রয়েছে পৃথিবী জুড়ে। এসব জায়গার সৌন্দর্যেরও জুড়ি নেই। তেমনই রয়েছে চারটি অদ্ভুত জায়গা।

মরিশাস উষ্ণপ্রধান এলাকার জন্য স্বর্গীয় স্থান হলেও এটি বিখ্যাত আরও একটি কারণে। প্রকৃতির খামখেয়ালিপনায় আপনাআপনিই এখানে একটি মরীচিকা তৈরি হয়েছে। বালির স্রোত এবং পানির ঢেউ মিলে এমন একটি অবস্থা সৃষ্টি করেছে, যার জন্য ওপর থেকে তাকালে মনে হবে পানির নিচে কোনো জলপ্রপাত বয়ে যাচ্ছে। আর তাতেই দ্বীপটির সৌন্দর্য বেড়ে গেছে কয়েক গুণ।

ভৌতিক পালমাইরা

সম্পূর্ণ প্রবাল দিয়ে তৈরি পৃথিবীর অন্যতম একটি বিচ্ছিন্ন দ্বীপ পালমাইরা। রেনফরেস্টে ঘেরা সুন্দর এ দ্বীপকে ঘিরে কিছু কুসংস্কার রয়েছে। ঘটেছে বেশ কিছু জাহাজ উধাও হওয়ার ঘটনাও। এসব কারণেই দ্বীপটিকে অনেকে ভৌতিক বলে আখ্যায়িত করেন। তাই এখানে আসতে হলে কর্তৃপক্ষের বিশেষ অনুমতি নিয়ে আসতে হয়। একসঙ্গে অনেকজন মিলে এখানে ঘুরতে আসাও নিষেধ।

গোল্ডেন ল্যান্সহেডের বাড়ি

ব্রাজিলের এক অদ্ভুত দ্বীপ স্নেক আইল্যান্ড। গোল্ডেন ল্যান্সহেড নামের অন্যতম বিষধর সাপে পরিপূর্ণ এই দ্বীপ। এক পরিসংখ্যানে পাওয়া গেছে, প্রায় ৪ হাজারের মতো সোনালি রঙের ল্যান্সহেড সাপের অবস্থান এখানে। যার ফলে প্রায় প্রতি বর্গমিটার এলাকাতেই গড়ে একটি সাপের দেখা মিলবে। জায়গাটি এতই বিপজ্জনক, ব্রাজিল সরকার দ্বীপটিতে সর্বসাধারণের প্রবেশ নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে।

সবুজ চাদরে জড়ানো

চীনের গোকুই আইল্যান্ডটি ছিল মৎস্য শিকারিদের আস্তানা। কিন্তু বেশ কয়েক বছর আগে এই দ্বীপ ত্যাগ করে জেলেরা শহরে ফিরে গেছেন। কিন্তু দ্বীপে নির্মিত তাদের বাড়ি কিংবা ছোট ছোট দালান রয়ে গেছে। অনেকদিন অব্যবহৃত থাকায় তা পুরোপুরি ছেয়ে গেছে সবুজে। দ্বীপটিই যেন এখন সবুজের আস্তরণ। বাড়িগুলোর ছাদ কিংবা দেয়াল সব চাপা পড়েছে সবুজের নিচে। প্রকৃতি তার সব সৌন্দর্য ঢেলে দিয়ে সাজিয়েছে এই গোকুই আইল্যান্ডটি।

 

 

কিউএনবি/আয়শা/১৫ই মে, ২০১৯ ইং/সন্ধ্যা ৭:৩৭