২৭শে মে, ২০১৯ ইং | ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | রাত ১:৪৬

বিয়ের প্রলোভনে দশম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ

 

ডেস্ক নিউজ : জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দশম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রীকে গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে জয়পুরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।অভিযুক্ত ধর্ষকের নাম সাগর হোসেন। তিনি পাঁচবিবি উপজেলার দানেজপুর এলাকার মনোয়ার হোসেনের ছেলে ও  মহিপুর সরকারি কলেজের শিক্ষার্থী।

ধর্ষণের শিকার ওই শিক্ষার্থী জানান, বেশ কয়েক বছর আগে তার বাবা-মায়ের মধ্যে বিচ্ছেদ ঘটে। মা জীবিকার সন্ধানে ওমানে চলে যান। এরপর থেকে ওই ছাত্রী দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার বামনগড় গ্রামে নানীর বাড়িতে থেকে বামনগড় বহুমুখী উচ্চবিদ্যালয়ে দশম শ্রেণিতে পড়াশোনা করতেন। চলতি বছরের ১৩ ফেব্রুয়ারি তিনি পূর্ব-বালিঘাটায় খালার বাড়িতে বেড়াতে আসেন।

সেখানেই সাগর হোসেন নামে ওই তরুণের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। দুই থেকে তিনবার তাদের মধ্যে শারীরিক সম্পর্কও হয়। এরই মধ্যে নির্যাতনের শিকার ওই স্কুলছাত্রী জানতে পারে তার খালাতো বোনের সঙ্গেও সাগরের সম্পর্ক ছিল। এরপর বিয়ের জন্য চাপ দিলে বিভিন্ন অজুহাত দেখিয়ে সাগর বিষয়টি এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। চাপাচাপির একপর্যায়ে গেল সোমবার শিক্ষার্থীকে পাঁচবিবিতে ডেকে আনে সাগর। কিন্তু পাঁচবিবিতে আসার পর যোগাযোগ না করায় বিষয়টি সাগরের পরিবারকে জানায় ওই শিক্ষার্থী।

এতে সাগর ক্ষিপ্ত হয়ে শিক্ষার্থীকে তুলে নিয়ে বটতলী এলাকার একটি বাগানে নিয়ে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। পরে রাতে খালার বাড়িতে এসে বিষয়টি খুলে বলে ওই শিক্ষার্থী। এরপর গতকাল মঙ্গলবার পরীক্ষার জন্য ওই শিক্ষার্থীকে জয়পুরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ বিষয়ে পাঁচবিবি থানার এসআই বজলুর রহমান জানান, বিষয়টি জানতে পেরে পুলিশ নিজ থেকেই হাসপাতালে গিয়ে মেয়েটির খোঁজ-খবর নিয়েছে।তবে এখনও থানায় কেউ লিখিত অভিযোগ দেয়নি।অভিযোগ পেলেই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

 

 

কিউএনবি/সাজু/২৭শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ইং/দুপুর ১:০১

Please follow and like us:
0
Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial