ব্রেকিং নিউজ
১৭ই জানুয়ারি, ২০১৯ ইং | ৪ঠা মাঘ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ৬:৫৪

শহীদ মিনার পরিচ্ছন্নতা কর্মসূচি

 

ডেস্ক নিউজ : শহীদ মিনার আজও মনে করিয়ে দেয় মাতৃভাষা বাংলাকে রাষ্ট্রভাষার রূপ দিতে গিয়ে শহীদদের রক্তের ইতিহাসের কথা। কিন্তু নানা অবহেলায় দেশের শহীদ মিনারগুলোতে জমে আছে ধুলা ও আবর্জনার স্তূপ।

‘স্মৃতির মিনার মোর পবিত্র, ভাষার মান সমুন্নত’ স্লোগানে রোববার সকাল সাড়ে ৯টায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে এই পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা কর্মসূচির উদ্বোধন করেন শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী। সেখানে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পাঁচ শতাধিক শিশুর অংশগ্রহণে শহীদ মিনার পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা কর্মসূচি পালিত হয়।

জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে শুরু হয় এই কর্মসূচি। এরপর বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে আগত শিশুরা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার কাজে অংশগ্রহণ করে। সকাল ১০টায় ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করার পাশাপাশি পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।

পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা কর্মসূচি শেষে অনুষ্ঠিত সাংস্কৃতিক পর্বে ‘বুকের মধ্যে আকাশ…’ এবং ‘মঙ্গল হোক এই শতকে…’ গানের সঙ্গে নৃত্য পরিবেশন করে শিল্পকলা একাডেমির নৃত্যদল। একক সঙ্গীত পরিবেশন করে শিশু শিল্পী ফারিহা খালদুন, সাদিয়া সেমন্তি, মেহের জামান, সেজুতি ও শ্রাবন্তী। এ ছাড়াও শিশু অ্যাক্রোবেটিক দলের অ্যাক্রোবেটিক প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয়। পাঁচ শিশু চিত্রশিল্পী অনুষ্ঠানের শুরু থেকে চিত্রাঙ্কনে অংশগ্রহণ করে।

তারা হচ্ছে নুসরাত জাহান নুহা, শাখাওয়াত হোসেন, সাফায়েত বিন ইমরান, নাজমুল ইসলাম ও ওয়ালিদ আহমেদ। দুপুর ২টায় একাডেমির জাতীয় নাট্যশালা সেমিনার কক্ষে শুরু হয় শিশুনাট্য কর্মশালা। কর্মশালার মুখ্য প্রশিক্ষক হিসেবে ছিলেন শিশুবন্ধু লিয়াকত আলী লাকী। ষাট শিক্ষার্থীর অংশগ্রহণে কর্মশালাটি শেষ হয় বিকাল ৫টায়। কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের পাশাপাশি একযোগে সারা দেশের শহীদ মিনারে এই কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়।

 

 

কিউএনবি/আয়শা/১৪ই জানুয়ারি,০১৯ ইং/সন্ধ্যা ৭:০৪