২১শে জানুয়ারি, ২০১৯ ইং | ৮ই মাঘ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ৩:৩২

ফুলবাড়ী পৌরভূমি কর্মকর্তাকে মারপিটের ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের॥

 

মোঃ আফজাল হোসেন, ফুলবাড়ী দিনাজপুর প্রতিনিধি : ফুলবাড়ী পৌরভূমি অফিসের কর্মকর্তাকে মারপিটের ঘটনায় একজনকে আসামী করে ফুলবাড়ী থানায় মামলা দায়ের। দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপৃজেলার পৌর ভূমি অফিসের ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মোঃ জাহেদুর রহমান সরকার এর ফুলবাড়ী থানায় গত ১০/০১/২০১৯ইং তারিখে দায়েরকৃত ইজাহার সূত্রে জানাযায় মোঃ জাহেদুর রহমান সরকার পৌর ভূমি অফিসে সরকারী রাজস্ব আদায়ের স্বার্থে দাখিলা লেখার কাজে ব্যস্তছিলেন এর মধ্যে ফুলবাড়ী পৌর শহরের পশ্চিম গৌরিপাড়া গ্রামের মৃত আব্দুল করিম সরকারের পুত্র মোঃ নবীউল ইসলাম ঐ দিন দুপুর সাড়ে ১২টায় ৪-৫ জন সন্ত্রাসী প্রকৃতির লোকজন সহ লাঠিসোটা হাতে নিয়ে তাকে অফিসের চেয়ার থেকে জোরপূর্বক উঠেনিয়ে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন।

এ সময় তার হাতে থাকা মোবাইল ফোনটি কেড়ে নিয়ে কোটশাটের কলার ধরে বারান্দায় এনে বলে, শালাকে মেরে ফেলব বলে হুমকি দেন। এসময় অফিসে আসা কতিপয় সন্ত্রাসীদেরকে বিনিত ভাবে বলেন, আমার সাথে এরুপ খারাপ ব্যবহার করছেন কেন জানতে পারি। এ কথা বলার সঙ্গে সঙ্গে মোঃ নবীউল ইসলাম বলেন, শালা ৪২৩ পি /১৮ এবং ৪২৪ পি/১৮ নং কেসের রায় আমার বিপক্ষে কেন গেল বেটা আমার বিপক্ষ পার্টির কাছে কত টাকা নিয়েছিস।যে আমার বিপক্ষে তদন্ত রিপোট দিয়েছিস।

এ কথা বলতে বলতে তার সন্ত্রাসীরা ভূমি কর্মকর্তা মোঃ জাহেদুর রহমান সরকারকে মারপিট করতে থাকে এবং রাস্তায় ফেলে দেয়। গত ০৬/০১/২০১৯ ইং হইতে গত ১০/০১/২০১৯ ইং পর্যন্ত ভূমি উন্নয়ন করের আদায় কৃত সরকারী গচ্ছিত ৩০,৫০১ টাকা কোটের পকেট থেকে বের করে নিয়ে যায় এবং জোরপূর্বক অফিস থেকে ভূমি কর্মকর্তাকে নিয়ে জাওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু তার অফিসে থাকা মোঃ আমিনুল ইসলাম, আল-আমিন, তাজুল ইসলাম, মশিউল ইসলাম ও চম্পাটুডুর সহায়তায় সে উদ্ধার হয়। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মোঃ জাহেদুল রহমান সরকার বাদি হয়ে গত ১০/০১/২০১৯ ইং তারিখে ফুলবাড়ী থানায় মোঃ নবীউল ইসলাম সহ অজ্ঞাত আরও ৪-৫ কে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন।

যাহার মামলা নং ৭, ধারা-৪৪৮, ১৮৬, ১৮৯, ৩৩২, ৩৩৩, ৩৫৩, ৩৭৯ দ:বি:।এই ঘটনায় ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাহী আফিসার মোঃ আব্দুস সালাম চৌধুরী সাথে যোগায়োগ করা হলে তিনি জানান, মামলা হয়েছে মামলা তার নিজ গতিতে চলবে। ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ নাসিম হাবিব জানান, তদন্ত করে মামলার সত্যতা পাওয়া গেছে।উল্লেখ্য যে, গত ২০ শে ডিসেম্বর ২০১৮ ইং তারিখে শুক্রবার রাত ৮ টার দিকে ফুলবাড়ী পৌর শহরে নিমতলা মোড়ে একটি দোকান ঘরের জায়গা নিয়ে ঘাটপাড়া গ্রামের মোঃ আব্দুল হাকিম প্রধানের সাথে এক ব্যক্তির বিরোধ চলে আসছে। হাকিম প্রধানের দোকানে উপর তলা মুন্সি হোটেলের মালিক ভাড়া নেয়। এর জের ধরে ফুলবাড়ী পৌরশহরের পশ্চিম গৌরিপাড়া গ্রামের বাসিন্দা মোঃ নবীউল ইসলাম ৩০-৪০ জন লোক নিয়ে মুন্সি হোটেলে হামলা করে।

প্রতিপক্ষের হামলায় ঐ দিন হোটেল ব্যবসায়ী মুন্সি হোটেলের মালিক আলমগীর মুন্সি(৫২) ও ঐ হোটেলের কর্মচারি মোঃ পলাশ (৩২) আহত হলে ঐ দিনে তাদেকে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করেন। এই ঘটনায় আলমগীর মুন্সি বাদি হয়ে ফুলবাড়ী থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। মুন্সি হোটেলের মালিক আলমগীর মুন্সি জানান, অন্যায় ভাবে আমার দোকানে হামলা করেন এবং দোকানের প্রায় ২২ হাজার টাকার ক্ষতি হয়। ফুলবাড়ী থানার পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করেছেন। দোকানে স্বত্ত্বাধীকারী মোঃ হাকিম প্রধান জানান, একটি মহলের মদদে ঐ ব্যক্তি আমার দোকান দখল করার চেষ্টা করে। কিন্তু প্রতিপক্ষ মোঃ নবীউল ইসলাম এখনও নানা ভাবে হয়রানি করছে আমাকে।

কিউএনবি/রেশমা/১২ই জানুয়ারি, ২০১৯ ইং/দুপুর ২:২৮