২৪শে জুন, ২০১৯ ইং | ১০ই আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | সন্ধ্যা ৬:০৪

সত্যপ্রিয়তার জন্য সাংবাদিক নির্যাতিত হয় -যতীন সরকার

 

শান্তা ইসলাম, নেত্রকোনা ঃ প্রকৃত সাংবাদিকরা সব সময় সত্যকে সমাজের সামনে তুলে ধরে। আমি যতীন সরকারকে দেশের প্রথম সারির পত্রিকা প্রথম আলো, সমকাল, কালেরকন্ঠ দেশ ও দেশের মানুষের সামনে তুলে ধরছে। সম্প্রতি আমাকে ব্য্রাক ব্যাংক ও সমকাল পুরস্কৃত করেছে। সাংবাদিকরা সব সময় সমাজের কল্যানে কাজ করে যাচ্ছে। সত্যপ্রিয়তার কারনে নির্যাতিত হয়।

অনেক সময় তাদেরকে প্রাণ পর্যন্ত দিতে হয়। তবু সত্য প্রকাশে সাংবাদিকরা থেমে নেই। মিথ্যে বলে বা লিখে সাংবাদিকদের পাড় পাওয়ার কোন সুযোগ নেই। কারণ দেশে এখন চলছে প্রতিযোগিতার যুগ। যে কোন ভাবেই সত্য সংবাদ কোন না কোন সংবাদপত্রে প্রকাশিত হবেই। তিনি আরও বলেন, আমি আমার জন্মভূমি নেত্রকোনাকে খুব ভালবাসী। আমি মারা গেলে যেন আমাকে নেত্রকোনার স্থানীয় স্মশানে দাহ করা হয়। কারন মৃত্যুর পরও নেত্রকোনার মাটি ও বাতাসের সাথে থাকতে চাই।

গতকাল বৃহস্পতিদবার দুপুরে নেত্রকোনা জেলা প্রেসক্লাবে কালেরকন্ঠের ১০ম প্রতিষ্ঠাবাষিকী উপলক্ষে আলালোচনা সভায় স্বাধীনতা ও বাংলা একাডেমির পুরস্কারপ্রাপ্ত প্রাবন্ধিক, গবেষক অধ্যাপক যতীন সরকার এ সব কথা বলেন। নেত্রকোনা জেলা প্রেসক্লাবের সহসভাপতি মুক্তিযোদ্ধা হায়দার জাহান চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও নেত্রকোনা সাহিত্য সমাজের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল্লাহ এমরানের সঞ্চালনায় সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন- প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শ্যামলেন্দু পাল, নেত্রকোনা সদর সার্কেল এএসপি মো. ফখরুজ্জামান জুয়েল, কালেরকন্ঠের শুভ সংঘের জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ গোলাম মোস্তফা, জেলা প্রতিনিধি মিজানুর রহমান নান্নু প্রমুখ। সভার শুরুতে অধ্যাপক যতীন সরকারকে গুণীজন সম্মননা প্রদান করা হয়। তাঁর হাতে ক্রেস্ট তুলে দেয়া হয়।

 

কিউএনবি/আয়শা/১০ই জানুয়ারি, ২০১৯ ইং/রাত ৮:১৭

Please follow and like us:
0
Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial