১৬ই জুন, ২০১৯ ইং | ২রা আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | সন্ধ্যা ৬:৫০

প্রথমে অবহেলা পরে শ্বাসরোধ করে স্ত্রীকে হত্যা

 

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি : টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে স্বামীর অবহেলা এবং পরে সেই স্বামী কর্তৃক হত্যার শিকার হল প্রতিবন্ধি শিউলি বেগম (৪০) নামে এক গৃহবধূ। ঘটনার পর স্বামী লাপাত্তা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার রাতে মির্জাপুর উপজেলার আনাইতারা ইউনিয়নের পাঁচদানা গ্রামে।

পুলিশ সূত্র জানায়, প্রায় ২০ বছর আগে এ উপজেলার চামারী ফতেপুর গ্রামের ছায়েদ আলীর ছেলে জালাল মিয়ার সাথে পার্শ্ববর্তী পাঁচদানরা গ্রামের জাবেদ আলীর প্রতিবন্ধী মেয়ে শিউলী বেগমের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই স্বামী তাকে এরিয়ে চলতে থাকে। এক পর্যায়ে জালাল আরেকটি বিয়ে করে।

দ্বিতীয় বিয়ের পর সে ওই স্ত্রীকে নিয়েই বসবাস করতো। হঠাৎ বুধবার সন্ধায় জালাল পাঁচদানা গ্রামে শিউলীদের বাড়ি আসে। রাতের খাবার শেষে দুজনেই এক ঘরে ঘুমিয়ে পরে। রাতের কোন এক সময় জালাল স্ত্রী শিউলীকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করে ঘরের বাইরে থেকে দরজা আটকিয়ে রাতের আধারে পালিয়ে যায়। প্রতিবেশিরা সকাল নয়টা পর্যন্ত ঘরের দরজা বন্ধ দেখে ঘরের দরজা খুলে শিউলিকে বিছানার ওপর মৃত অবস্থায় দেখতে পান।

খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার সকালে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মির্জাপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. মোশারফ হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, স্বামী পলাতক রয়েছে। পেশায় রাজমিস্ত্রি হলেও জালাল খারাপ প্রকৃতির লোক ছিল বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।

 

 

কিউএনবি/আয়শা/১০ই জানুয়ারি, ২০১৯ ইং/বিকাল ৫:৩৫

Please follow and like us:
0
Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial