২৪শে জুন, ২০১৯ ইং | ১০ই আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | রাত ৯:৪১

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে দীর্ঘ যানজট, চরম দুর্ভোগে যাত্রীরা

 

ডেস্ক নিউজ : ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লা অংশের দাউদকান্দি এলাকায় দীর্ঘ যানজটে মঙ্গলবার রাত থেকে বুধবার দিনভর চরম ভোগান্তিতে পড়েছে শতশত যাত্রী ও পণ্যবাহী গাড়ি। এ যানজট স্থায়ী না হলেও গতি কম থাকায় ঘণ্টার পর ঘণ্টা বিভিন্ন যানবাহনের যাত্রীদের দুর্ভোগ পোহাতে হয়। ঢাকা-কুমিল্লা সড়কে ২ ঘণ্টার সড়ক যাতায়াতে লেগে যাচ্ছে ৬ থেকে ৭ ঘণ্টা। এমন ভোগান্তির কথা জানিয়েছেন ভুক্তভোগী গাড়ির চালক ও যাত্রীরা।

জানা গেছে, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ২য় গোমতী, মেঘনা ও কাঁচপুর সেতু দুই লেনের হওয়ার কারণে এ মহাসড়কে যানজট নিত্যদিন লেগেই থাকে। ফোর লেনের এ মহাসড়কের গাড়িগুলো ওইসব সেতু এলাকায় যাওয়ার পর গতি কমে যায় এবং দুই লেনের সেতু দিয়ে ধীরে ধীরে যাতায়াতের কারণে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়ে থাকে। এসব সেতুর পাশে আরো দুই লেনের সেতু নির্মাণ করা হচ্ছে। সেতুগুলো নির্মাণাধীন হওয়ায় এবং গাড়ির চাপ অধিক হারে বেড়ে যাওয়ায় মঙ্গলবার রাত থেকে যানজট প্রকট আকার ধারণ করে।

গাড়ির চালকদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, মঙ্গলবার রাত থেকে মেঘনা সেতুর উভয় পাশে অন্তত ২৫ কিলোমিটার যানজট ছড়িয়ে পড়ে। এ যানজট মেঘনা সেতুর পর্ব দিকে দাউদকান্দির ২য় গোমতী সেতু ও পশ্চিমে কাঁচপুর এলাকা পর্যন্ত বিস্তৃতি লাভ করে। বুধবার বিকাল পর্যন্ত ওই তিনটি সেতু কেন্দ্রিক সড়কে যানজটের ফলে গাড়ি ধীরে ধীরে চলছিল বলে তারা জানান।

এদিকে মঙ্গলবার রাতে ঢাকা থেকে কুমিল্লায় আসা এশিয়া লাইন পরিবহনের যাত্রী শিক্ষক হুমায়ুন কবির জানান, রাত (মঙ্গলবার) ৮টায় ঢাকা থেকে রওয়ানা দিয়ে রাত ২টার দিকে কুমিল্লায় পৌঁছতে হয়েছে। এদিকে রাতের ভোগান্তির পর বুধবার ভোর থেকে দিনভর মহাসড়কের ওইসব সেতুর উভয় দিকে যানজট চলছিল বলে জানা গেছে। এতে ঢাকা-কুমিল্লা সড়কে ২ ঘণ্টার সড়ক যাতায়াতে লেগে যাচ্ছে ৬ থেকে ৭ ঘণ্টা। বিকাল সাড়ে ৫টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কুমিল্লার দাউদকান্দি অংশে অন্তত ৬-৭ কিলোমিটার এবং মেঘনা সেতুর উভয় পাশে অন্তত ২০ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে যানজট ছিল বলে জানিয়েছেন তিশা পরিবহনের চালক জামাল উদ্দিন, রয়েল কোচের চালক সুমন মিয়াসহ বিভিন্ন যানবাহনের চালক ও যাত্রীরা।

যানজটের ফলে দূরপাল্লার যানবাহনের নারী-পুরুষ ও বৃদ্ধ ও রোগীসহ বিভিন্ন বয়সের যাত্রীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। হাইওয়ে পুলিশের দাউদকান্দি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল কালাম জানান, ‘মহাসড়কে যানজট রয়েছে কিন্তু তা স্থায়ী হচ্ছে না। গোমতী ও মেঘনা সেতু এলাকায় টোল আদায় ও বিকল্প সেতু নির্মাণের কারণে যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রণ করতে গিয়ে যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। এসব কারণে সাপ্তাহিক ছুটি সামনে রেখে বৃহস্পতিবার থেকে শনিবার পর্যন্ত গাড়ির চাপ বৃদ্ধি পেতে পারে এবং যানজট আরো বাড়তে পারে বলে আশংকা করা হচ্ছে। তবে যানজট নিরসনে হাইওয়ে পুলিশের সর্বাত্মক চেষ্টা অব্যাহত আছে।’

 

 

কিউএনবি/আয়শা/৯ই জানুয়ারি, ২০১৯ ইং/সন্ধ্যা ৭:০৯

Please follow and like us:
0
Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial