২২শে মার্চ, ২০১৯ ইং | ৮ই চৈত্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ৮:৫৬

বড়াইগ্রামে মৃতকে দেখে মৃত্যু !

 

অমর ডি কস্তা, বড়াইগ্রাম নাটোর প্রতিনিধি: নাটোরের বড়াইগ্রামের বনপাড়া খ্রিস্টান পাড়ায় শ্যামলী গমেজ নামে ব্রতীয় একজন সিস্টারের মৃতদেহ দেখার সময় আকস্মিক মৃত্যু হয়েছে জন নরু কস্তা (৬০) নামের এক ব্যক্তির। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ওই সিস্টারের বাড়িতে তার মৃত্যু হয়। নরুর পাশ্ববর্তী কালিকাপুর এলাকার মৃত তিমথি কস্তার ছেলে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বিকেল তিনটার দিকে শ্যামলী গমেজ রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যু বরণ করেন। তার মৃতদেহ সন্ধ্যা ৭টার দিকে বনপাড়া খ্রিস্টান পাড়াস্থ নিজ বাড়িতে পৌঁছালে নরু তাকে শেষবারের জন্য দেখতে যায়। মৃতদেহ দেখার পর উঠে দাঁড়ালে সে আকস্মিক মাটিতে লুটে পড়ে ও মুহুর্তেই মৃত্যু বরণ করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও বিশিষ্ট চিকিৎসক সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী। তিনি জানান, হৃদক্রিয়া বন্ধ হয়ে তার মৃত্যু হয়েছে।

এদিকে বুধবার ছিলো সিস্টার শ্যামলী গমেজের ব্রতীয় জীবনের ২৫ বছর পূর্তি। এ উপলক্ষে ৩ সহ¯্রাধিক মানুষ নিমন্ত্রিত হয়েছিলেন তার এই অনুষ্ঠানে। কিন্তু আগের দিন বিকেলে শ্বাসকস্ট জনিত রোগে তার মৃত্যু হয়। মৃত্যু কালে তার বয়স হয়েছিলো ৪৮ বছর। সে বনপাড়া খ্রিস্টান পাড়ার গেদন ফার্নান্ডু গমেজের একমাত্র কণ্যা ও ৬ ভাইয়ের মধ্যে একমাত্র বোন। তাকে ঘিরে আনন্দউৎসব হয়ে গেলো কান্না ও বেদনার আহাজারি জর্জরিত। তার এই মৃত্যুতে বড়াইগ্রামের ৬ ধর্মপল্লীতে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। দুপুর ২টায় দিনাজপুর জেলা শহরের ক্যাথলিক চার্চ শান্তি রাণী সিস্টার্স কবরাস্থানে সিস্টার শ্যামলী গমেজের মৃতদেহ সমাহিত করা হয়েছে। এর আগে দুপুর ১২টার দিকে বনপাড়াস্থ খ্রিস্টান কবরাস্থানে নরুকে সমাহিত করা হয়েছে।

কিউএনবি/অনিমা/৯ই জানুয়ারি, ২০১৯ ইং/বিকাল ৪:১৫