১৯শে ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং | ৫ই পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ৭:২৬

রাঙামাটিতে ৯৪দিন পর অপহৃত চাকমা তরুনী উদ্ধার : আটক-৩

 

আলমগীর মানিক,রাঙামাটি : আঞ্চলিকদলের স্বজাতীয় সন্ত্রাসী কর্তৃক অপহরনের শিকার চাকমা তরুনীকে দীর্ঘ ৯৪ দিন পর অবশেষে মঙ্গলবার ভোরে উদ্ধার সক্ষম হয়েছে নিরাপত্তা বাহিনী। এসময় মূল অপহরণকারী সঞ্জয় চাকমা ও তার পিতামাতাকেও আটক করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন রাঙামাটি কোতয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ মীর জাহিদুল হক রনি। উদ্ধারকৃত তরুনী নিজে বাদী হয়ে তাকে অপহরণ ও ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের করেছে।

থানা সূত্র জানিয়েছে, উদ্ধারকৃত তরুনীটি জানায়, চলতি মাসের আগষ্ট মাসের ১৭ তারিখে সদর উপজেলাধীন কুতুকছড়ির আবাসিক এলাকা থেকে উক্ত চাকমা তরুনীকে অপহরণ করে পার্বত্য চুক্তি বিরোধী আঞ্চলিক সংগঠনের সক্রিয় সদস্য সঞ্জয় চাকমা ও তার সহযোগিরা। পরে তাকে সাপছড়ির বোধিপুরস্থ ডলুছড়া এলাকায় নিজ বাসায় নিয়ে ইচ্ছার বিরুদ্ধে ধারাবাহিকভাবে ধর্ষণ করে সঞ্জয় চাকমা। এভাবে দীর্ঘ ৯৪দিন তার উপর নির্যাতন চালায় সঞ্জয়।বেশ কয়েকবার চেষ্ঠা করেও সে সঞ্জয়ের কবল থেকে মুক্ত হতে পারেনি।

অবশেষে মেয়েটির মাধ্যমে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলবার ভোরে উক্ত বোধিপুরস্থ ডলুছড়ি এলাকায় নানিয়ারচর জোনের সেনাবাহিনীর সদস্যরাসহ কোতয়ালী থানা পুলিশের যৌথ অভিযানে ভিকটিমকে উদ্ধারের পাশাপাশি মূল অপহরণকারী সঞ্জয় চাকমা, তার পিতা প্রসন্ন কুমার ও মাতা- সুমন্তি চাকমাকে আটক করা হয়।

রাঙামাটি কোতয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ মীর জাহিদুল হক রনি জানিয়েছেন, আটককৃত সঞ্জয়ের বিরুদ্ধে অপহরণ ও ধর্ষণের অভিযোগ এবং তার পিতা-মাতার বিরুদ্ধে সহযোগিতার অভিযোগ এনে উক্ত অপহৃত তরুনী বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছে।মামলা নাম্বার-১৬, তারিখ: ২০/১১/২০১৮ইং।ওসি জানান, আটককৃতদের কাছ থেকে আরো তথ্য পাওয়ার লক্ষ্যে আদালতে রিমান্ডের আবেদন জানানো হবে।তারই আলোকে পরবর্তী আইনানুগ পদক্ষেপ গ্রহণ করবে পুলিশ।

 

 

 

কিউএনবি/সাজু/২০শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং/রাত ৮:০৩