১৬ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং | ২রা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সন্ধ্যা ৭:৫৪

একই দোষে দুষ্ট ইভাঙ্কা! কী বলবেন ট্রাম্প?

 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : একই দোষে দুষ্ট হয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মেয়ে এবং হোয়াইট হাউসের শীর্ষ উপদেষ্টা ইভাঙ্কা ট্রাম্প।সরকারি কাজের জন্য তিনি বিভিন্ন জায়গায় ব্যক্তিগত ইমেইল একাউন্ট ব্যবহার করে শত শত ইমেইল পাঠিয়েছেন। সূত্রঃ ওয়াশিংটন পোস্ট

২০১৬ সালে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকালীন ঠিক একই কাণ্ডটি করেছিলেন ডেমোক্র্যাট দলের প্রার্থী হিলারি ক্লিনটন। সে সময় হিলারীর এমন কাণ্ডের কঠোর সমালোচনা করেছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।হিলারিকে এ কাজের জন্য জেলে পাঠানো উচিত বলে মন্তব্য করেছিলেন ট্রাম্প।

উল্লেখ্য, ওই সময় হিলারি ক্লিনটন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন।সোমবার ওয়াশিংটন পোস্ট জানিয়েছে, ট্রাম্প কন্যা ইভাঙ্কা এ ঘটনা ঘটিয়েছেন গত বছর।

তিনি ইমেইলগুলো হোয়াইট হাউসের বিভিন্ন সহযোগীর কাছে, মন্ত্রিপরিষদের সদস্যদের কাছে এবং নিজের সহকারীদের কাছে পাঠিয়েছিলেন।আর এসব ইমেইল তিনি ব্যক্তিগত ইমেইল একাউন্ট থেকে পাঠিয়েছিলেন।

ওয়াশিংটন পোস্টের দাবি, অনেক ক্ষেত্রেই ইভাঙ্কা সরকারি রেকর্ড সংক্রান্ত গোপনীয়তা বজায় রাখার নিয়ম লঙ্ঘন করেছেন।এ বিষয়ে ইভাঙ্কার আইনজীবী আবে লোয়েল থেকে এখনও কোনো মন্তব্য আসেনি।ইভাঙ্কার ইমেইল ব্যবহার নিয়ে প্রশ্নের তাৎক্ষণিক জবাব দেয় নি হোয়াইট হাউস।

তবে এসব মেইলের কোনোটিই ইভাঙ্কা মুছে দেননি জানিয়ে আবদে লয়েলের মুখপাত্র পিটার মিরিজানিয়ান দাবি করেছেন, ইভাঙ্কার মেইলে কোনো রাষ্ট্রীয় গোপনীয় তথ্য ফাঁস করা হয় নি।

তিনি আরও বলেন, ইভাঙ্কা এখন সরকারের অংশ। তিনি মাঝে মাঝে ব্যক্তিগত একাউন্ট ব্যবহার করেছেন। অবশ্য তা যৌক্তিক কারণে এবং তার পরিবারের শিডিউলের কথা মাথায় রেখে।

এ বিষয়ে ট্রাম্প মুখ খোলেন নি এখনও।

 

 

কিউএনবি/অায়শা/২০শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং/বিকাল ৪:৪৩