ব্রেকিং নিউজ
১৩ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং | ২৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১২:৪৯

নিজেকে খাশোগির স্ত্রী দাবি করলেন ভিন্ন এক নারী

 

আর্ন্তজাতিক ডেস্কঃ  তুরস্কের ইস্তানবুলে সৌদি কনস্যুলেটে বিয়ের কাগজপত্র আনতে গিয়ে আর ফিরে আসেননি খাশোগি। পরবর্তীতে তাকে পূর্বপরিকল্পিত হত্যা করা হয়েছে বলে স্বীকার করেছে সৌদি কৌঁসুলিরা। এবার এক নারী নিজেকে সেই খাশোগির স্ত্রী বলে দাবি করেছেন।যুক্তরাষ্ট্রে ধর্মীয় রীতি অনুসারে সে মিসরীয় নারীকে সৌদি সাংবাদিক জামাল খাশোগি বিয়ে করেছিলিন বলে খবর বেরিয়েছে। তবে খাশোগির পরিবার সে সম্পর্কে কোনো তথ্য জানাতে পারেনি।

এক সাক্ষাৎকারে ওই নারী বলেন, একজন মুসলিম নারী হিসেবে আমি নিজের পূর্ণ অধিকার ও স্বীকৃতির দাবিতেই খাশোগির সঙ্গে সম্পর্কের কথা প্রকাশ্যে নিয়ে এসেছি।নিরাপত্তার কথা ভেবে নিজের নামের আদ্যাক্ষর ও শেষাংশ প্রকাশ করতে রাজি হয়েছেন ওই মিসরীয় নারী। যা হচ্ছে, এইচ. এবং আতার। এক্ষেত্রে বিয়েতে সাক্ষী হিসেবে থাকা খাশোগির দীর্ঘ সময়ের এক সঙ্গীও এই নারীর বক্তব্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। নিরাপত্তার কারণে তিনিও নিজের নাম প্রকাশ করেননি।

এ বিয়ের বিষয়ে কথা বলতে অস্বীকার জানিয়েছে খাশোগির পরিবার।ভিন্ন এক নারীকে বিয়ে করতে কাগজপত্র আনার জন্য ইস্তাম্বুলের সৌদি কনসুলেট ভবনে প্রবেশ করে নিহত হন খাশোগি। খাশোগির সেই তুর্কি বাগদত্তা খাদিজা সেনগিজ বলেছেন, এ বিয়ে নিয়ে তিনি কিছু জানেন না। মিসরীয় ওই নারীর উদ্দেশ্য নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তিনি। তার সুনাম নষ্ট করতেই এমনটা করা হচ্ছে বলে মনে করেন খাদিজা।

 

 

কিউএনবি/অদ্রি আহমেদ/১৮.১১.২০১৮/ সকাল ৯.৪৫