১৮ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | বিকাল ৪:১৮

সাত দিনে অর্ধ-শতাধিক বসতবাড়ি ধরলার গর্ভে

 

ডেস্ক নিউজ : লালমনিরহাটে ধরলার ভাঙন থামছেই না। তীব্র ভাঙনে গত এক সপ্তাহে সদর ও পাটগ্রাম উপজেলার ছয়টি ইউনিয়নের অর্ধ-শতাধিক বসতবাড়ি, ফসলি জমি ও গাছপালা নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। হুমকির মধ্যে রয়েছে আরো শতাধিক পরিবার। সরেজমিনে দেখা যায়, সদর উপজেলার কুলঘাট, মোগলহাট, বড়বাড়ী এবং পাটগ্রামের শ্রীরামপুর, জোংড়া, বুড়িমারী ইউনিয়নের ১৬টি পয়েন্টে নদী ভাঙন তীব্র আকার ধারণ করেছে। এর মধ্যে জোংড়া, কুলাঘাট ও মোগলহাটের অবস্থা উদ্বেগজনক।

তবে পাউবো কিছু এলাকায় ভাঙন ঠেকাতে বাঁধ নির্মাণের কাজ করছে। এদিকে, বাধ নির্মাণের কাজ পরিকল্পিতভাবে করা হচ্ছে না বলে এলাকাবাসী অভিযোগ করেছে। কুলাঘাট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ইদ্রিস আলী মাস্টার বলেন, ধরলার ভাঙনে চলতি বছর তার ইউনিয়নের শতাধিক পরিবার ঘরবাড়ি হারিয়েছে। কয়েকশ একর ফসলি জমি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। লালমনিরহাট পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, ভাঙন রোধে পাউবো পরিকল্পনা করেই কাজ বাস্তবায়ন করছে।

কিউএনবি/অনিমা/২৪শে অক্টোবর,২০১৮ ইং/সকাল ১১:৩৪