১৮ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | বিকাল ৪:১৩

খাশোগি ‘হত্যা’ : তুরস্কের কাছে সাক্ষ্যপ্রমাণ চায় যুক্তরাষ্ট্র

 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : সৌদি সাংবাদিক জামাল খাশোগিকে হত্যা করা হয়েছে বলে তুরস্ক যে দাবি করেছে তার প্রমাণ চায় যুক্তরাষ্ট্র।ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেটে খাশোগিকে হত্যা করা হয়েছে, এমন জোরালো প্রমাণ আছে বলে দাবি করা রেকর্ডিং তুরস্কের কাছে চেয়েছেন ট্রাম্প।

বিবিসি জানিয়েছে, বুধবার হোয়াইট হাউসে এক সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প বলেছেন ‘আমরা সেগুলো (রেকর্ডিং) চেয়ে পাঠিয়েছি, যদি সেগুলো থেকে থাকে’। 
 

যে টেপে খাশোগি হত্যার প্রমাণ আছে বলে বলা হচ্ছে সেটি চেয়ে পাঠানোর কথা নিশ্চিত করে ট্রাম্প বলেছেন, ‘এটার অস্তিত্ব আছে কি না আমি নিশ্চিত নই। সম্ভবত আছে, খুব সম্ভবত আছে।’ ট্রাম্প জানান,  সৌদি আরব ও তুরস্ক সফর করে আসা পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওর কাছ থেকে একটি প্রতিবেদন প্রত্যাশা করছেন তিনি।

প্রসঙ্গত, খাশোগি কিছু দরকারি কাগজপত্র সংগ্রহ করতে গত ২ অক্টোবর ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটে গিয়েছিলেন। তারপর থেকে তার আর কোনো খোঁজ নেই।

তুরস্কের দাবি, খাশোগিকে কনস্যুলেট ভবনের ভেতরে হত্যার পর তার লাশ সরিয়ে ফেলা হয়েছে। তবে সৌদি আরব তুরস্কের দাবিকে ‘মিথ্যা এবং ভিত্তিহীন অভিযোগ’ বলে উড়িয়ে দিয়েছে।
 

যুক্তরাষ্ট্রের ঘনিষ্ঠ মিত্রদের অন্যতম সৌদি আরব। তাই খাশোগির বিষয়টি নিয়ে অস্বস্তিতে আছে ট্রাম্প প্রশাসন।

তুরস্ক দাবি করে আসছে, সৌদি আরব থেকে পাঠানো ১৫ জনের একটি টিম খাশোগি হত্যায় জড়িত। তাদের এ ব্যাপারে বিশেষ নির্দেশনা দিয়েই ইস্তাম্বুলে পাঠিয়েছিল রিয়াদ।

নিউ ইয়র্ক টাইমস তাদের এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, এই ১৫ জনের মধ্যে অন্তত ৯জন সৌদি নিরাপত্তা বাহিনী, সেনাবাহিনী অথবা সরকারের অন্যান্য মন্ত্রণালয়ে কর্মরত আছে। চেহারা চিহ্নিতকরণ সফটওয়্যার, সৌদি মোবাইল ফোন নাম্বার, ফাঁস হওয়া সৌদি সরকারের গোপন নথি, প্রত্যক্ষদর্শী ও গণমাধ্যমের সহযোগিতায় সন্দেহভাজনদের সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানা সম্ভব হয়েছে।

 

কিউএনবি/রেশমা/১৮ই অক্টোবর, ২০১৮ ইং/বিকাল ৩:১৬