১৬ই অক্টোবর, ২০১৮ ইং | ১লা কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ৭:৩৯

গবেষণা : ভালোবাসা থাকলে যৌনতা জরুরী নয়

 

লাইফষ্টাইল ডেস্ক : সম্প্রতি এক জরিপে দেখা গেছে, যাদের বয়স ৩০ বছরের নিচে তাদের মধ্যে ১৮ শতাংশ গত এক বছরে ১০ বারের কম যৌনমিলন করেছে। সব বয়সী মানুষের মধ্যে এ হার ২৯ শতাংশ। ব্রিটেন-ভিত্তিক দুটি ওয়েবসাইট মামসনেট এবং গ্রানসনেট ২০০০ মানুষের উপর জরিপ চালিয়ে এ তথ্য প্রকাশ করেছে।

অ্যামান্ডা এবং স্টিভ। গত ছয় বছর যাবত বিবাহিত জীবন তাদের। সংসারে তাদের ২২ মাস বয়সী একটি সন্তান আছে। কিন্তু তাদের জীবনে এখন যৌন চাহিদা নেই বললেই চলে।

বিষয়টি নিয়ে ৩৫ বছর বয়সী অ্যামান্ডা বলেন, ‘আমি সারাক্ষণ খুব ক্লান্ত থাকি। কারণ আমার অনেক কাজ। বাসায়ও আমাকে অনেক কাজ করতে হয়। মনে হচ্ছে আমার যৌন চাহিদাও ক্লান্ত হয়ে পড়েছে।’

অ্যামান্ডা এবং স্টিভ বলেন- এখন প্রতি ছয় সপ্তাহে তাদের একবার যৌনমিলন হয়।

স্টিভ বলেন, ‘বাচ্চা আশপাশে রেখে দিনের বেলায় কিংবা সন্ধ্যায় যৌনমিলন হয়না। যদি বাচ্চাকে দুই ঘণ্টার জন্য ঘুমিয়ে রাখি তখন মনে হয় অন্য কাজ করি অথবা আমিও ঘুমাই।’

অ্যামান্ড এবং স্টিভ, যৌন মিলনের সময় এবং শক্তি দুটোর জন্যই তাদের সংগ্রাম করতে হচ্ছে। 

এ বিষয়ে সেক্স থেরাপিস্ট মার্টিন বুরো বলেন, ‘এখন অনেক মানুষ তাদের কাছে পরামর্শের জন্য আসছে যারা যৌন জীবন নিয়ে অসন্তুষ্ট।’

তিনি বলেন, ‘যৌনতা না থাকলেও আপনি একটি সফল সম্পর্ক তৈরি করতে পারেন। কিছু মানুষ আছে যাদের সুখী হবার জন্য যৌনতার প্রয়োজন নেই।’

জ্যাকব এবং শার্লট- দু’জনের বয়স ৩২ বছর। তাদের মধ্যে অনেক ভালোবাসা থাকলেও তাদের সম্পর্কের মাঝে যৌনতা নেই।

এ বিষয়ে শার্লট বলেন, ‘আমাদের চার বছরের সম্পর্ক। কিন্তু গত তিন বছর আমরা কোন যৌন মিলন করিনি এবং এটা করার কোন পরিকল্পনাও নেই।’

শার্লট আরও বলেন, ‘প্রথম ছয় মাস যৌন মিলনের বিষয়টি আমাদের ক্লান্ত করে তুলেছিল। এটা আমাদের সুখী করতে পারছিল না। যিনি যৌন মিলন করতে চায় না জ্যাকবও তার সঙ্গে যৌন মিলনে আগ্রহী হয় না।’

কিছু পুরুষের কাছে বিষয়টি এমন মনে হতে পারে যে তার সঙ্গী হয়তো প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করছেন। কিন্তু জ্যাকব সে রকম নয়।

শার্লট বলেন, ‘অনেক মানুষ আছে যারা সুখী হবার চেয়ে যৌনতাকে বেশি প্রাধান্য দেয়।’

কিছু দম্পতি বলেন, ‘কোন রকম যৌন মিলন ছাড়াও তারা একে অপরের প্রতি সর্বোচ্চ আন্তরিক হতে পারে।’

অ্যামান্ডা বলেন, ‘কোন ধরণের যৌনতা ছাড়াই তার স্বামী স্টিভ-এর সঙ্গে চমৎকার সম্পর্কের অন্যতম চাবিকাঠি হচ্ছে দুজনের মধ্যে ভালো যোগাযোগ।’

এ অবস্থায় যেসব দম্পতি আছে তাদের মনঃক্ষুণ্ণ না হতে উপদেশ দিয়ে তিনি বলেন, ‘আমাদের সবার ক্ষেত্রেই এরকম ঘটে।’

সূত্র : বিবিসি বাংলা

কিউএনবি/রেশমা/২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং/সকাল ১১:৫৪