১৮ই অক্টোবর, ২০১৮ ইং | ৩রা কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | বিকাল ৪:৩৪

যুক্তরাষ্ট্রের চিকিৎসকদের সঙ্গে চাকরির সুযোগ দিচ্ছে অগমেডিক্স বাংলাদেশ

 

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক : বাংলাদেশে বসে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের চিকিৎসকদের সঙ্গে চাকরি করার সুযোগ দিচ্ছে তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান অগমেডিক্স বাংলাদেশ। ইতিমধ্যে তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের এলআইসিটি প্রকল্পের আওতায় ১৬০ জন স্ক্রাইবকে প্রশিক্ষণ দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। রোববার সন্ধ্যায় ঢাকা ক্লাবে অগমেডিক্স বাংলাদেশের আয়োজনে ‘অগমেডিক্স স্ক্রাইব অ্যাচিভারস নাইট’ অনুষ্ঠানে ১৬০ জন স্ক্রাইবকে সম্বর্ধনা দেয়া হয়।

অনুষ্ঠানে অগমেডিক্স বাংলাদেশ ২০২১ সাল নাগাদ হাজারেরও বেশি মধ্যম আয়ের চাকরি প্রদানের পরিকল্পনা পেশ করে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। বিশেষ অতিথি ছিলেন স্কয়ার গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তপন চৌধুরী। এছাড়া এলআইসিটি, এসইআইওই, বাক্যসহ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, ব্যবসায়িক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এবং তথ্য প্রযুক্তি খাতের শীর্ষ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
অগমেডিক্স বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাশেদ মুজিব নোমান বলেন, এলআইসিটি প্রকল্পের সরাসরি সহযোগিতায় অগমেডিক্স মধ্যম আয়ের জনগোষ্ঠী তৈরি করে ডিজিটাল বাংলাদেশ ২০২১ এর লক্ষ্য পূরণে সাফল্যের সঙ্গে এগিয়ে যাচ্ছে। ভবিষ্যতেও বাংলাদেশ সরকারের তথ্য প্রযুক্তি বিভাগের সমর্থন অব্যাহত থাকবে, যা প্রযুক্তি নির্ভর স্ক্রাইব সেবার মাধ্যমে তরুণদের জন্য বৈদেশিক মুদ্রা উপার্জনের পরিবেশ প্রতিষ্ঠা করতে সাহায্য করবে।
প্রসঙ্গত, বাংলাদেশি বংশোদ্ভুত ইয়ান শাকিল ২০১২ সালে সানফ্রান্সিসকোতে অগমেডিক্স প্রতিষ্ঠা করেন। এটি এমন এক সেবা-মাধ্যম যেখানে একজন চিকিৎসক গুগল গ্লাস পরে রোগী দেখবেন এবং বাংলাদেশ থেকে দক্ষ স্ক্রাইবরা এই কথোপকথনটি সরাসরি দেখে ও শুনে চিকিৎসকদের গুরুত্বপূর্ণ ইলেকট্রনিক্স মেডিকেল স্ক্রাইব সম্পূর্ণ করার দায়িত্ব পালন করবেন।
অগমেডিক্স বাংলাদেশ ২০১৭ সালের প্রথম বেসিস আইসিটি অ্যাওয়ার্ডের হেলথ অ্যান্ড ওয়েল-বিং বিভাগে প্রথম রানার আপ হয় এবং একই সঙ্গে ২০১৭ সালের ১৭তম অ্যাপিকটাতেও প্রথম রানার আপ হয়। এই ধারা বজায় রেখে অগমেডিক্স ভবিষ্যতে আরও কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করছে, যাতে দেশের তরুণ সমাজের বিশেষ করে প্রকৌশলী এবং দক্ষ স্ক্রাইবদের নিয়োগের সম্ভাবনা থাকছে।
অগমেডিক্স প্রতি মাসে ২৫-৩০ জন নতুন স্ক্রাইব নিয়োগের উদ্দেশ্যে প্রত্যেক মঙ্গলবার ও শুক্রবার বিকাল সাড়ে চারটায় তাদের পান্থপথ কার্যালয়ে ইনফরমেশন সেশনের আয়োজন করে যা সবার জন্য উন্মুক্ত। এর পাশাপাশি বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়েও তারা এই কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে, যেখান থেকে প্রাথমিক বাছাইপর্ব শুরু হয়।
কিউএনবি/আয়শা/২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং/বিকাল ৫:৫৯