১৪ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং | ৩০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সন্ধ্যা ৬:২৮

ঝিনাইগাতীতে ব্রিজের অভাবে দুর্ভোগে ১০ গ্রামের মানুষ

ডেস্ক নিউজ : শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার চতল গ্রামে একটি ব্রিজের অভাবে দশ গ্রামের মানুষকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। আহমদনগর-বনগাঁও রাস্তার চতল গ্রামের শাওকাত মণ্ডলের বাড়ির সামনে ভাঙ্গা অংশে একটি ব্রিজ নির্মাণের দাবি ওঠে দেশ স্বাধীনের পর থেকেই। কিন্তু আজও তা বাস্তবায়িত হয়নি। 

মহারশী নদীর বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ ভেঙ্গে ঢলের পানির তোড়ে এখানে খালের সৃষ্টি হয়। এ খালের উপর দিয়ে বনগাঁও, চতল, সুরিহারা, দিঘীরপাড়, আহমদনগর, হলদিবাটা, পাগলারমুখ, কালিনগর, বন্দভাটপাড়া, জিগাতলাসহ বিভিন্ন গ্রামের শত শত মানুষ যাতায়াত করে থাকে। স্কুল- কলেজের কোমলমতি শিশু কিশোরসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ যাতায়াত করে থাকে এ পথে। কিন্তু এখানে একটি ব্রিজ না থাকায় পথচারীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। 

এলাকায় উৎপাদিত কৃষি পণ্য সঠিক সময়ে  বাজারজাত করতে পারছেন না। গবাদি পশু নিয়ে কৃষকদের হতে হচ্ছে নানা বিড়ম্বনার শিকার। এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে এখানে একটি বাঁশের সাঁকো নির্মাণ করে পারাপার হচ্ছে গ্রামবাসীরা। এতে মাঝে মধ্যেই দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে শিশু কিশোররা। 

চতল গ্রামের জমশেদ আলী, চান মিয়াসহ গ্রামবাসীরা জরুরী ভিত্তিতে এই ভাঙ্গা অংশের একটি ব্রিজ নির্মাণসহ রাস্তাটি পাকা করনের দাবি জানিয়েছেন। এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকৌশলী রফিকুল ইসলামের সঙ্গে কথা হলে তিনি বলেন, ওই রাস্তার ৪টি ভাঙ্গা অংশের মধ্যে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের অর্থে একটি ব্রিজ নির্মাণ করা হয়েছে। বাকি ভাঙ্গা অংশে ব্রিজ নির্মাণের জন্যে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে প্রস্তাব প্রেরণ করা হয়েছে। 

কিউএনবি/অনিমা/২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং/সন্ধা ৬:৪০