১৪ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং | ৩০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সন্ধ্যা ৭:৩৮

যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত, তবে শান্তির পথও খোলা: পাকিস্তান আর্মি

 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : পাকিস্তান সেনাবাহিনীর মুখপাত্র মেজর জেনারেল আসিফ গফুর বলেছেন, আমরা যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত, তবে পাকিস্তানের জনগণ শান্তি চায়। প্রতিবেশী দেশের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক স্থাপনেও আমরা বিশ্বাসী বলে মন্তব্য করেন তিনি।

ভারতের সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াতের বক্তব্যের পাল্টা জবাবে এ কথা বলেন আসিফ গফুর। শনিবার ভারতের জয়পুরে পাকিস্তানের সঙ্গে শান্তি আলোচনা নাকচ করে দেয়া প্রসঙ্গে ভারতের সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াত বলেন, পাকিস্তানের সঙ্গে শান্তি আলোচনার সময় এখন না। এখন তাদের বর্বরতার জবাব দেয়ার সময়।

এ সময় সন্ত্রাস ও আলোচনা একসঙ্গে চলতে পারে না মন্তব্য করে বিপিন বলেন, আমাদের সরকারের নীতি এ ব্যাপারে স্পষ্ট। পাকিস্তানের উচিত এসব সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড বন্ধ করা। উল্লেখ্য,পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের পক্ষ থেকে ভারতের সঙ্গে আলোচনার প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল।

কিন্তু কয়েকদিন আগে পাক-ভারত সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) এক সদস্যের মাথাবিহীন লাশ পাওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র দুদেশের মাঝে আবার কূটনৈতিক উত্তেজনা বিরাজ করছে।

এ ঘটনার পরই পাকিস্তানের পক্ষ থেকে আসা আলোচনার প্রস্তাব বাতিল করে দেয় ভারত। ভারত দ্বিপাক্ষিক আলোচনা বাতিল করায় পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান এক টুইটবার্তায় বলেন, ভারত আলোচনার প্রস্তাব বাতিল করে দেয়ায় আমি হতাশ।

ইমরান খানের এ বক্তব্যের পাল্টা জবাবে ভারতের সেনা প্রধান বলেন, পাকিস্তানের জঙ্গি ও সেনার বর্বরতার বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেয়ার সময় এসেছে। তবে তা হতে পারে ভিন্ন উপায়ে, বর্বরতায় নয়। ভারতের সেনা প্রধানের এমন হুশিয়ারির জবাবও আসে পাক সেনার পক্ষ থেকে।

মেজর জেনারেল আসিফ গফুর এক টিভি চ্যানেলে জানিয়েছেন, পাকিস্তান শান্তি চায়। শান্তি কী জিনিস তা পাকিস্তান ভালো করেই জানে। পাকিস্তানকে দুর্বল ভাবলে ভুল হবে। যুদ্ধ চাপিয়ে দিলে আমারও তৈরি রয়েছি। ভুলে গেলে চলবে না আমারও পারমাণবিক অস্ত্রসমৃদ্ধ একটি দেশ। তিনি আরও যোগ করেন, সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে পাকিস্তানের দীর্ঘদিন যুদ্ধ করার রেকর্ড রয়েছে।

মাথাহীন বিএসএফ সদস্যের মৃত্যু প্রসঙ্গে আসিফ গফুর বলেন, অতীতে সেনার দেহ বিকৃত করার অভিযোগ ভারত বারবারই করেছে। পাক সেনা একটি পেশাদার বাহিনী। এ রকম ন্যাক্কারজনক কাজ তারা করে না। সূত্র: ডন, টাইমস অব ইন্ডিয়া, দ্য ইকোনমিক টাইমস।

 

 

কিউএনবি/আয়শা/২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং/দুপুর ১২:৩২