১৪ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং | ৩০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সন্ধ্যা ৬:২৪

সরকার সব গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠান ধ্বংস করে দিয়েছে

 

ডেস্ক নিউজ : বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এই সরকার অত্যন্ত সুপরিকল্পিতভাবে বাংলাদেশের সব গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠান ধ্বংস করে দিয়েছে। সরকার পার্লামেন্টকে ধ্বংস করেছে ১৫৪ জন অনির্বাচিত সংসদ সদস্য দিয়ে, বিচার বিভাগ-প্রশাসনকে দলীয়করণ করে ফেলেছে। গণমাধ্যমকে জবরদস্তি করে দখল করে রেখেছে। সরকারের মতো করে, সরকারের হুকুমে চলে এমন একটি নির্বাচন কমিশন গঠন করে রেখেছে। এসব কারণে সরকারের বিচার হবে।

আজ বুধবার বিকেলে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।মির্জা ফখরুল বলেন, আপনাদের দেশকে আপনাদের রক্ষা করতে হবে। এই মানুষদের আপনাদের রক্ষা করতে হবে, অন্য কেউ উড়ে এসে আপনাদের রক্ষা করবে না। তাই ঐক্যের কোনো বিকল্প নেই। সমস্ত জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করে এই ‘দানব’ সরকারকে সরিয়ে দিয়ে জনগণের শাসন প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

তিনি বলেন, বিএনপির উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য, স্থায়ী কমিটির সদস্য থেকে শুরু করে যাঁরা কোনো কিছুর সঙ্গে জড়িত নন, এমন মানুষের নামেও মামলা দেওয়া হয়েছে। প্রতিটি থানায়-থানায়, ওয়ার্ড বিএনপির নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে এসব মামলা দেওয়া হয়েছে।মির্জা ফখরুল আরও বলেন, জোর করে, মামলা দিয়ে ক্ষমতায় টিকে থাকা যায় না। মিথ্যা মামলা দিয়ে সরকার জোর করে ক্ষমতায় টিকে থাকতে চায়। যখন জনগণ থেকে কোনো সরকার বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়, তখন অত্যাচার-নির্যাতনের পথ বেছে নেয়।

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন এবং বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতির ওপর বহুদলীয় মতবিনিময় সভার আয়োজন করে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ। জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব নূর হোসেন কাসেমী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন।

 

 

 

কিউএনবি/সাজু/১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং/রাত ৮:৪৩