২১শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | দুপুর ২:০১

প্রতিদিন রসুন খেয়ে থাকুন রোগ মুক্ত!

নিউজ ডেস্ক- রসুন হল পিঁয়াজ জাতীয় একটি ঝাঁঝালো সবজি যা রান্নার মশলা ও ভেষজ ওষুধ হিসাবে ব্যবহৃত হয়।প্র।এর অ্যান্টি ব্যাক্টেরিয়াল গুণের জন্য রসুন সর্দি-কাশি সারাতে উপযোগী। অন্যান্য বহু শারীরিক সমস্যারও সমাধান হয় রসুনের সাহায্যে। রসুনের বেশকিছু সাধারণ গুণাগুণ তুলে ধরা হলো-

১.ভেষজ গুণ:

ভেষজ গুণ কৃমিনাশক, শ্বাসকষ্ট কমায়, হজমে সহায়তা করে, প্রস্রাবের বেগ বাড়ায়, শ্বাসনালীর মিউকাস বের করে দেয়, অ্যাজমা রোগীর উপশম দেয়, চুল পাকনো কমায়, হাড়ের বিভিন্ন রোগ সারায়।

২.শারীরিক সৌন্দর্যে রসুন:

মুখে কালো ছোপ থাকলে, রসুনের রস গোলাপ জলের সঙ্গে মিশিয়ে নিয়মিত মাখলে ফল পাওয়া যাবে। ব্রণে রসুনের রস তুলোয় করে রাতে ঘুমনোর সময় লাগিয়ে পরে ধুয়ে ফেললে উপকার পাওয়া যাবে। অবাঞ্ছিত আঁচিলে রসুনের রস সপ্তাহ খানেক লাগালে তা খসে পড়ে। পায়ে কড়া পড়লে রাতে রসুনবাটা লাগিয়ে নিউকোপ্লাস্ট জাতীয় কিছু দিয়ে মুখে রাখতে হবে। এভাবে দিন কয়েক রাখলে তা স্বাভাবিক হয়ে যাবে।

৩.সংক্রামক রোগ নিরাময়:

সংক্রামক রোগ নিরাময়ে রসুনের বিশেষ ভূমিকা আছে। আগেকার দিনে টিবির রোগীকে রসুন খেতে বলা হত। রসুন অ্যান্টিভাইরাল, অ্যান্টিব্যাকটিরিয়াল ও অ্যান্টি ফাঙ্গাল গুণ যুক্ত ওযুধ।

৪.মশা-মাছি তাড়াতে:

কর্পুরের সঙ্গে পোড়া রসুন মেশানে মশা, মাছি, পোকামাকড়ের হাত থেকে রেহাই পাওয়া যায়। রসুন পিষে জলের সঙ্গে মিশিয়ে ঘর মুছলেও, পোকা মাকড়ের হাত থেকে রেহাই পাওয়া যায়।

৫.নানা কাজে রসুন:

প্রথম বিশ্বযুদ্ধে জখন সেনাদের গ্যাংগ্রিনের চিকিৎসায় সালফারের অভাব পড়লে রসুন ব্যবহার করা হত। হাত থেকে রসুনের গন্ধ দূর করতে, ঠাণ্ডা জলের মধ্যে স্টিলের বাসনে হাত ঘষলে গন্ধ দূর হবে।

কিউএনবি/নিল/১১ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং /১৬ঃ১১