১৬ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং | ২রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | রাত ১০:৩১

কুমারখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরিদর্শন করলেন পৌর মেয়র

বিশেষ প্রতিনিধি : কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নগর পিতা মোঃ সামছুজ্জামান অরুন সকল কমিশনারদের নিয়ে ৯ সেপ্টেম্বর সোমবার পানি, বিদ্যুৎ ও ড্রেনেজ ব্যবস্থা পরদর্শন পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য স্ব-শরীরে আসেন। তিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অকেজো টিউবওয়েল, রোডের অপর্যাপ্ত আলো প্রদানের বাতি এবং অব্যবহৃত ও সংকীর্ণ ড্রেনেজ ব্যবস্থা সচলের জন্য আগামী ৭ দিনের মধ্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের প্রতিশ্রুতি ব্যাক্ত করেন।

এ সময় তার সাথে ছিলেন প্যানেল মেয়র এস এম রফিক এবং অন্যান্য কাউন্সিলরদের মধ্য ছিলেন মোঃ মাহাবুব আলম বাবু, মোঃ ফরিদ ইকবাল খান,মোঃ আকামুদ্দিন আকাই, মোঃ তুহিন শেখ, মোঃ আনিসুর রহমান (১), মোঃ আনিছুর রহমান (৯) সহ আরো অনেকে। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উদ্ভূত সমস্যা গুলি সমাধানের পাশাপাশি তিনি আকস্মিক ভাবে ৫০ শয্যা বিশিষ্ট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটির হতদরিদ্র রোগীদের চিকিৎসা সেবার মান পরিদর্শনে গিয়ে দেখেন কুমারখালী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সেবার মান শূন্যের কোঠায়। হাসপাতলে রোগী দেখানো হচ্ছে সেকমো অর্থাৎ স্যাটালাইট কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার দিয়ে। টি এইচ ও ডাঃ মোঃ আকুল উদ্দিনের খোঁজ নিলে জানা যায় তিনি আমেরিকা গিয়েছেন।

ভূক্তভোগীরা অনেকেই বলেন ডাঃ মোঃ আকুল উদ্দিন বছরের অধিকাংশ সময় আমেরিকা থাকেন। হসপিটালটাকে তিনি তার বাড়ী বানিয়ে ফেলেছেন। দায়িত্বপ্রাপ্ত ডাঃ মানা সান্তা ঘোষ পৌরমেয়র মোঃ সামছুজ্জামান অরুনকে জানান হসপিটালে এখন ডাঃ আছেন মাত্র ৪ জন।

মেয়র বলেন কোন সেকমো কে দিয়ে রোগী দেখানো যাবে না। চিকিৎসার অভাবে রোগী মারা গেলে আমরা লাশ নিয়ে মিছিল করবো। দায়িত্বপ্রাপ্ত ডাঃ মানা সান্তা ঘোষ টি এইচ ও ডাঃ মোঃ আকুল উদ্দিন আমেরিকা থেকে ফিরে আসা পর্যন্ত সময় চেয়ে নেন।